কপিরাইট ফ্রি মিউজিক ডাউনলোড করার সেরা কিছু সাইট।

কপিরাইট ফ্রি ভিডিও নিয়ে আমরা সবাই কাজ না করলেও, কপিরাইট ফ্রি মিউজিক আমাদের কম বেশি সকলেরই দরকার।

গত পর্বে আমি আলোচনা করেছি কপিরাইট ফ্রি ভিডিও সম্পর্কে। আর আজকের বিষয়, কোন কোন সাইট থেকে আপনারা সম্পূর্ন কপিরাইট ফ্রি মিউজিক ডাউনলোড করতে পারবেন।

আমাদের যেমন সবার পক্ষে নির্দিষ্ট জায়গায় গিয়ে ভিডিও তৈরি করা সম্ভব না ঠিক তেমনি আমাদের সবার পক্ষে মিউজিক ও তৈরি করা সম্ভব নয়। কিন্তু একটি ভিডিও কে আকর্ষনীয় করে তুলতে এবং অন্যমাত্রায় নিয়ে যেতে মিউজিকের কোন বিকল্প নেই। মিউজিক দর্শকদের ভিডিও এর উপর তাদের মনোযোগ ধরে রাখতে সহায়তা করে।

তাহলে চলুন শুরু করা যাক কোন কোন সাইট হতে খুব সহজে এবং কোন প্রকার অর্থ ব্যয় না করেই কপিরাইট ফ্রি মিউজিক পাওয়া যায়।

কপিরাইট ফ্রি মিউজিক কি এবং কেন প্রয়োজন?

কপিরাইট ফ্রি মিউজিক হলো সেই সব মিউজিক যা সবার জন্য উন্মুক্ত এবং যে সব মিউজিক ব্যবহার করার জন্য আপনাকে কোন প্রকার অর্থ প্রদান করতে হবে না।

আমরা যারা ইউটিউব বা ফেসবুকে ভিডিওগ্রাফী নিয়ে কাজ করি তাদের অন্যতম একটি বড় সমস্যা হলো এই কপিরাইট ফ্রি মিউজিক। আপনি যে কোন ধরনের ভিডিও নিয়ে কাজ করেন না কেন, হোক সেটা ক্রিয়েটিভ কমনস ভিডিও বা নিজের তৈরি করা ভিডিও। সকল ক্ষেত্রেই আপনার মিউজিকের প্রয়োজন হবে।

কিন্তু মিউজিক আমাদের সকলের পক্ষে তৈরি করা সম্ভব না। আবার যে কারো মিউজিক বা যে কোন প্রকার কন্টেন্টই হোক সেটা কপি করা কতটা বিপদজ্জনক তা যারা ইউটিউবে কাজ করি তাদের দ্বিতীয় বার বলার প্রয়োজন হয় না।

কেননা যে কোন জায়গা থেকে মিউজিক ব্যবহার করলে তাতে কপিরাইট ক্লেইম আসার সম্ভাবনা থেকে যায় ১০০%। আমার নিজের কথাই বলি, ইউটিউবের শুরুতে কপিরাইট মিউজিক সম্পর্কে তেমন কোন ধারনা ছিলো না। যার দরুন আমাদের চ্যানেলের ফানি ভিডিও তে যেখান সেখান থেকে মিউজিক কপি করে অ্যাড করে দিয়েছিলাম।

কিন্তু ফলাফল স্বরুপ, ভিডিও গুলো র‌্যাংক করার ২/৩ মাসের মধ্যেই আমার চ্যানেলের ভিডিও গুলোতে কপিরাইট ক্লেইম আসে। যার কারনে পরবর্তীতে মিউজিক গুলো চেন্জ করতে হয়। কিন্তু সমস্যা এখানেই শেষ না। মিউজিক গুলো চেন্জ করার ফলে ভিডিও এর মধ্যে ব্যবহার করা সাউন্ড ইফেক্ট গুলো ও ডিলিট হয়ে যায়। যা যে কোন ভিডিও এর জন্য খুবই ক্ষতিকর। আর তাই এসব কারনে আমাদের কপিরাইট ফ্রি মিউজিকের প্রয়োজন হয়।

কপিরাইট ফ্রি মিউজিক ডাউনলোড করার কিছু সাইট

এক নজরে যে সব সাইট গুলো সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে –

  1. YouTube Studio (Audio Library)
  2. Mixkit
  3. BenSound
  4. Free-Stock-Music
  5. Joshwoodward
  6. Epidemic Sound

1. YouTube Studio (Audio Library)

আসলে কপিরাইট ফ্রি মিউজিক নিয়ে চিন্তার কোন কারনই নেই। আপনার শুধু এই বিষয়ে একটু ধারনা রাখা দরকার যে অন্যের মিউজিক বা যে কোন কন্টেন্ট কপি করা যাবে না। কারন সয়ং ইউটিউবই আপনাকে হাজার হাজার মিউজিক দিচ্ছে যা একদম কপিরাইট ফ্রি এবং সম্পূর্নে বিনা মূল্যে।

ইউটিউব থেকে মিউজিক এবং সাউন্ড ইফেক্ট ডাউনলোড করার জন্য প্রথমে Youtube থেকে Youtube Studio সিলেক্ট করুন। এখন YouTube Studio তে বাম পাশের অপশন থেকে Audio Library সিলেক্ট করুন। এখানে আপনি Free Music এবং Sound effects এ প্রচুর সংখ্যাক মিউজিক এবং সাউন্ড ইফেক্ট পেয়ে যাবেন।

তবে ইউটিউব ষ্টুডিও তে সকল মিউজিক ফ্রি হলে ও এখানে কিছু কিছু মিউজিকের জন্য আপনাকে ক্রেডিট দিতে হবে। কিন্তু এমন খুব কম মিউজিকই পাওয়া যায় যে গুলোতে ক্রেডিট দিতে হয়।
ইউটিউব ষ্টুডিও এর Audio Library তে থাকা সকল মিউজিক এর পাশে ইউটিউবের লোগো সম্বলিত একটি আইকন দেখতে পাবেন, সেখানে মাউস পয়েন্ট রাখলেই উক্ত ভিডিওতে ক্রেডিট দিতে হবে কিনা সেটা দেখিয়ে দিবে। তবে চিন্তার কোন কারন নেই। বর্তমান সময়ে ক্রেডিট দিতে হয় এমন মিউজিক পাবেন না বললেই চলে।

আমার মতে কপিরাইট ফ্রি মিউজিক এর জন্য ইউটিউব ষ্টুডিওই শ্রেয়। এখান থেকে ডাউনলোড করা মিউজিকের জন্য আপনাকে কোন দিন কপিরাইট ক্লেইমের আওতায় পড়তে হবে না।

2. Mixkit

Mixkit কে পছন্দের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রাখার আরো একটি অন্যতম কারন হলো, এখানে কেবল আপনি কপিরাইট ফ্রি মিউজিক পাবেন তা নয়। কপিরাইট ফ্রি মিউজিক এর পাশাপাশি এখানে আপনি প্রচুর সংখ্যাক ফ্রি ভিডিও ক্লিপ ও পেয়ে যাবেন।

তবে ভিডিও এর জন্য Mixkit এ দুই ধরনের লাইসেন্স ব্যবহার করা হয় তা হলো Stock Video Free License এবং Stock Video Restricted License। যে সব ভিডিও এর পাশে Stock Video Free License দেওয়া থাকবে সেই ভিডিও গুলো কোন প্রকার ক্রেডিট প্রদান করা ছাড়াই ইউটিউব বা ফেসবুক যে কোন জায়গায় ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে যে সকল ভিডিও এর পাশে Stock Video Restricted License নোট দেওয়া থাকবে সেই ভিডিও গুলো কেবল ব্যাক্তিগত কাজে ব্যবহার করতে পারবেন। অর্থাৎ উক্ত ভিডিও গুলো ইউটিউব বা ফেসবুকে মনিটাইজ এর কাজে ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে এটা শুধু ভিডিও এর ক্ষেত্রে, মিউজিক এর ক্ষেত্রে এমন কোন বাধ্যবাধকতা নেই।

এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে আমাদের কপিরাইট ফ্রি ভিডিও এর আর্টিকেলটি পড়ুন।

Mixkit এ একটি অন্যতম বিশেষ সুবিধা হলো এই সাইটের কোন প্রকার ভিডিও বা মিউজিকের জন্য আপনাকে কোন প্রকার ক্রেডিট দেওয়ার প্রয়োজন হবে না।Mixkit এ যে আপনি কেবল কপিরাইট ফ্রি মিউজিক এবং ভিডিও পাবেন তা নয়। এখানে আপনি প্রচুর সংখ্যাক সাউন্ড ইফেক্ট, ফ্রি Premiere Pro থেকে শুরু করে After Effects এবং Final Cut Pro এর Templates ও পাবেন। যা সম্পূর্ন ফ্রি এবং কোন প্রকার ক্রেডিট প্রদান করা ছাড়াই।

এক নজনে Mixkit এর বৈশিষ্ট্য –

  • Mixkit এ সকল প্রকার কপিরাইট ফ্রি মিউজিক, ভিডিও এবং সাউন্ড ইফেক্ট পাওয়া যায়।
  • বিভিন্ন প্রকার Editing Templates যেমন, Premiere Pro থেকে শুরু করে After Effects এবং Final Cut Pro এর Templates সম্পূর্ন ফ্রি তে পাবেন।
  • Mixkit থেকে ব্যবহৃত কোন মিউজিক, ভিডিও , সাউন্ড ইফেক্ট, Premiere Pro, After Effects এবং Final Cut Pro এর Templates এর জন্য কোন প্রকার ক্রেডিট প্রদান করতে হয় না।
  • ভিডিও এর জন্য Mixkit দুই ধরনের লাইসেন্স ব্যবহার করা হয়, তাই ব্যবহারের পূর্বে সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন। তবে মিউজিক গুলো সম্পূর্ন ফ্রি।

3. BenSound

BenSound কপিরাইট ফ্রি মিউজিক এর জন্য আরো জনপ্রিয় একটি সাইট। এখানে আপনি পর্যাপ্ত সংখ্যাক মিউজিক পাবেন যা কোন প্রকার কপিরাইট ইস্যূ ছাড়াই আপনার ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক পেজে ব্যবহার করতে পারবেন। BenSound এর মিউজিক গুলো সম্পূর্ন ফ্রি তবে এখানে আপনাকে মিউজিক গুলো ব্যবহারের জন্য ক্রেডিট দিতে হবে।

উদাহরন স্বরুপ, আপনি যদি কোন ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক পেজে BenSound এর কোন মিউজিক ব্যবহার করেন তাহলে ভিডিও টির Description Box এ মিউজিকটির নাম সহ সাইটের নামটি উল্লেখ করে দেবেন। যেমন – Music: “Song Title” from Bensound.com.

আর যদি কোন ওয়েবসাইটের ভিডিও তে তাদের কোন মিউজিক ব্যবহার করেন তাহলে সাইটের আর্টিকেলটির যে কোন স্থানে তাদের ওয়েবসাইটটি উল্লেখ করে দিবেন। যেমন – “Music: bensoud.com”

BenSound এর মিউজিক ব্যবহার করে যে কাজ গুলো করতে পারবেন না –

  • আপনি তাদের সাইটের মিউজিক ব্যবহার করে সেটা নিজের মিউজিক বলে দাবি করতে পারবেন না। যদিও এটা কেউই করে না।
  • BenSound থেকে মিউজিক ডাউনলোড করে অন্য কোন থার্ড পার্টি সাইটে শুধু মাত্র মিউজিক হিসাবে আপলোড করতে পারবেন না। যেমন – আপনি BenSound থেকে মিউজিক ডাউনলোড করে অন্য কোন কপিরাইট ফ্রি সাইট তথা Mixkit এ মিউজিকটি আপলোড করতে পারবেন না।
  • কোন প্রকার অডিও বুক বা অডিও পোড কাষ্টে আপলোড করতে পারবেন না।
  • আপনি তাদের মিউজিক ব্যবহার করে কোন রিমিক্স বা গান তৈরি করতে পারবেন না।

এক নজরে BenSound এর বৈশিষ্ট্য –

  • BenSound এর সকল মিউজিক কপিরাইট ফ্রি সুতরাং আপনি উক্ত মিউজিক গুলো ইউটিউব বা ফেসবুকে মনিটাইজ এর জন্য আপনার ভিডিও তে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • BenSound এর মিউজিক ব্যবহারের জন্য আপনাকে অবশ্যই তাদের ক্রেডিট দিতে হবে।
  • BenSound এর মিউজিক অন্য কোন সিমিলার থার্ড পার্টি সাইট যেমন Mixkit এ আপলোড করতে পারবেন না।

উপরোক্ত নিয়ম গুলো মেনে নির্দ্বিধায় আপনার ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক পেজে BenSound এর মিউজিক ব্যবহার করুন।

বি:দ্র: BenSound প্রো লাইসেন্স ও বিক্রি করে থাকে। আপনি চাইলে অর্থের বিনিময়ে তাদের মেম্বরশীপ নিতে পারেন। তবে এটা আমাদের মতো ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক পেজ মালিকদের পক্ষে খুব একটা লাভজনক হবে না।

4. Free-Stock-Music

Free-Stock-Music নামের সাথে তারা কামেও কোন অংশে কম নয়। এখানে আপনি শতাধিক রয়্যাটি ফ্রি মিউজিক কোন প্রকার কপিরাইট ইস্যূ ছাড়াই ব্যবহার করতে পারবেন। তবে মিউজিক গুলো কপিরাইট ফ্রি হলেও এগুলো ব্যবহারের জন্য তাদের ক্রেডিট দিতে হবে।কিভাবে ক্রেডিট দিবেন সেটাও তার খুব সুন্দর ভাবে প্রত্যেকটি মিউজিক এর সাথে দিয়ে দিয়েছে।

কপিরাইট ফ্রি মিউজিক

উপরের ছবিটি লক্ষ্য করুন। এখানে দেখতে পাচ্ছেন, প্রত্যেকটি মিউজিকের নিচে আপনি এমন লেখা দেখতে পাবেন। মিউজিকটির নিচে তারা বলেই দিয়েছে যে, এই মিউজিকটি আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিও বা ফেসবুক পেজ যে কোন স্থানে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে নিচের লেখাটি আপনার ভিডিও এর Description Box এ ক্রেডিট হিসাবে দিতে হবে।

সুতরাং তারা যেভাবে বলেছে সেই ভাবে ক্রেডিট প্রদান করে তাদের মিউজিক গুলো ব্যবহার করুন, তাহলে কোন প্রকার কপিরাইট ক্লেইম আসবে না। অন্যথায় কপিরাইট ক্লেইম আসার সম্ভাবনা থেকে যাবে।

এক নজরে Free-Stock-Music এর বৈশিষ্ট্য –

  • Free-Stock-Music এর মিউজিক গুলো কপিরাইট ফ্রি মিউজিক বা ক্রিয়েটিভ কমনস এর আওতাভুক্ত। সুতরাং মিউজিক গুলো আপনি ইউটিউব বা ফেসবুকে কমার্শিয়াল কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • Free-Stock-Music এর মিউজিক গুলো ব্যবহারের জন্য আপনাকে অবশ্যই তাদের ক্রেডিট দিতে হবে।

5. Joshwoodward

Joshwoodward একদিকে যেমন একটি ডোমেইন নেম, অন্য দিকে আবার একজন ব্যক্তি এবং একটি প্রতিষ্ঠান ও বটে। তিনি পেশায় একজন মিউজিশিয়ান। এই ওয়েবসাইটের সকল মিউজিক তার নিজের কম্পোজ করা।

এখানে আপনি সম্পূর্ন নিজের চাহিদা অনুযায়ী ক্যাটাগরি ফিল্টার করে আপনার কাঙ্খিত মিউজিক খুজে পেতে পারেন।
Joshwoodward এর মিউজিক গুলো সম্পূর্ন কপিরাইট ফ্রি হলেও, এই মিউজিক গুলো ব্যবহারের জন্য আপনাকে অবশ্যই ক্রেডিট দিতে হবে। এখানে ক্রেডিট দিতে আপনাকে আপনার ইউটিউব ভিডিও বা ফেসবুক পেজের ভিডিও এর Description Box এ ব্যবহারকৃত মিউজিকের টাইটেল এবং সাথে সাইটের লিংক শেয়ার করতে হবে।

Joshwoodward এর ক্রেডিট দেওয়ার জন্য তাদের একটা নির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে সেটা হলো –

Music – “SONG TITLE” by josh Woodward.
Free download: http://joshwoodward.com/

অর্থাৎ আপনার ইউটিউব ভিডিও বা ফেসবুক ভিডিও এর Description Box এ উপরের ন্যায় Song title এ মিউজিকটির নাম এবং সাথে ওয়েবসাইটের লিংক যুক্ত করে দিতে হবে।
এভাবে ক্রেডিট না দিলে আপনার ভিডিওতে কপিরাইট ক্লেইম আসার সম্ভাবনা থেকে যেতে পারে।

6. Epidemic Sound

কপিরাইট ফ্রি মিউজিক এর জন্য Epidemic Sound খুবই জনপ্রিয় একটি সাইট। এখানে আপনি সাইন আপ না করেই যথেষ্ট সংখ্যাক মিউজিক পেয়ে যাবেন যা সম্পূর্ন কপিরাইট ফ্রি।

এখানে ক্রেডিট এর বিষেয়ে স্পষ্ট করে তেমন কিছু বলা নেই। তবু ও যেহেতু তারা প্রিমিয়াম মেম্বরশীপ বিক্রয় করে সেহেতু তাদের মিউজিক ব্যবহারে ক্রেডিট দেওয়া উচিৎ।

Epidemic Sound এর মিউজিক গুলো নি:সন্দেহে খুবই প্রিমিয়াম লেভেলের। এবং আরো একটি মজার ব্যপার এই যে, আপনি কোন প্রকার অর্থ প্রদান ছাড়াই সাইন আপে প্রথম ৩০ দিন ফ্রি ট্রায়াল পেয়ে যাবেন। যেখানে আপনি প্রিমিয়াম মেম্বরশীপের সুবিধা পাবেন।

ক্রেডিট এর বিষয়ে যেহেতু তেমন কিছু উল্লেখ নেই সেহেতু আপনার ইউটিউব বা ফেসবুক ভিডিও এর Description Box এ তাদের ওয়েবসাইটের লিংকটি ব্যবহার করবেন।

=শেষ কথা=

আর্টিকেলটি আমাদের মতো কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের জন্য কপিরাইট ফ্রি মিউজিক এবং ভিডিও এর গুরুত্বের উপর বিবেচনা করে লেখা হয়েছে। তাছাড়া আমরা যারা নতুন ইউটিউব বা ফেসবুক জার্নি শুরু করি তাদের সঠিক গাইড লাইনের জন্য আশা করি আর্টিকেলটি অনেক কাজে লাগবে।

আর্টিকেলটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। পরবর্তী আর্টিকেল আসা পর্যন্ত ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।

Share this

Leave a Comment