ব্লগারে কিভাবে ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি তৈরি করবেন?

ব্লগিং এর তৃতীয় পর্বে আজ আলোচনা করব কিভাবে আপনি খুব সহজেই ব্লগারে একটি ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি করবেন।

ব্লগারে ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি তৈরি

প্রথম ধাপ

ব্লগারে ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি তৈরি করতে এখানে ক্লিক করুন অথবা ভিজিট করুন “www.blogger.com” অতঃপর “Create your Blog” অপশনে ক্লিক করুন।

প্রথমত ব্লগারে একটি ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি তৈরি করতে আপনাকে অবশ্যই একটি জিমেইল একাউন্ট বা গুগোল একাউন্ট থাকতে হবে আপনার নিকট যদি অলরেডি কোন গুগল অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তাহলে উক্ত একাউন্টে লগইন করুন বা নতুন গুগল একাউন্ট তৈরি করতে “Create account” এ ক্লিক করুন অথবা এখানে ক্লিক করুন।

উল্লেখ্য আপনি চাইলে আপনার পার্সোনাল একাউন্ট দিয়ে লগইন করে ব্লগারের ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি তৈরি করতে পারেন। কিন্তু আমি আপনাকে ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য একটি নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে বলবো। কেননা পার্সোনাল একাউন্টে ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করার চেয়ে ব্লগের জন্য আলাদা একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করা উত্তম এতে আপনার সাইটের নিরাপত্তা বৃদ্ধি পাবে।

দ্বিতীয় ধাপঃ

ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি

গুগল একাউন্টে লগইন করার পর দ্বিতীয় পর্যায়ে ব্লগারের উক্ত পেজ প্রদর্শিত হবে। এখানে আপনার ব্লগ বা ওয়েব সাইটের Title/টাইটেল প্রদান করতে হবে। Title/টাইটেল হলো আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের নাম। অর্থাৎ যে নামে আপনি আপনার সাইটের ডোমেইন তৈরি করতে চান সেই নামটি এখানে প্রদান করুন। টাইটেল প্রদান করে “Next” বাটনে ক্লিক করুন।

“Next” বাটনে ক্লিক করার পর উক্ত পেজটি প্রদর্শিত হবে। এখানে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের এড্রেস প্রদান করুন। অর্থাৎ আপনি যে নামে ডোমেইন তৈরি করতে চান সেই নামটি এখানে প্রদান করুন। আপনি চাইলে পরবর্তীতে এই ডোমেইন ও টাইটেল দুটোই পরিবর্তন করতে পারবেন।

ডোমেইন নির্বাচনে বিবেচ্য বিষয়: ব্লগ বা ওয়েবসাইটের ডোমেইন নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ। যথাসম্ভব সংক্ষিপ্ত ডোমেইন নির্বাচন করুন এবং আপনি যে বিষয়ের উপর লেখালেখি করতে চান

অর্থাৎ যে বিষয়ের উপর আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করেছেন সেই বিষয় সম্পর্কিত একটি ডোমেইন পছন্দ করুন এতে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট সার্চইঞ্জিনে দ্রুত রেঙ্ক করতে সহায়তা করবে।

মনে করুন আপনি ভ্রমণ বিষয়ক একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করছেন। তাহলে আপনার ডোমেইন এর নামটিও সেইভাবে পছন্দ করুন যেন মানুষ আপনার ডোমেইন দেখেই বুঝতে পারে উক্ত ব্লগ বা ওয়েবসাইট কোন বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত।

ব্লগার ফ্রিতে ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরীর জন্য সাবডোমেইন প্রোভাইড করে থাকে। অর্থাৎ আপনি যে নামে ডোমেইন পছন্দ করবেন তার শেষে অতিরিক্ত “.blogspot.com” যুক্ত হবে।

যেমন “yourname.blogspot.com” একে সাবডোমেইন বলা হয়। আর শুধুমাত্র “yourname.com” একে টপ লেভেল ডোমেইন বলে। টপ লেভেল ডোমেইনের সাথে অতিরিক্ত কোন এক্সটেনশন থাকেনা। ব্লগারে টপ লেভেল ডোমেইন যুক্ত করতে হলে আপনাকে প্রথমে একটি টপ লেভেল ডোমেইন ক্রয় করতে হবে। এবং তারপর সেটি ব্লগারে যুক্ত করতে পারবেন।

ব্লগারে কিভাবে টপ লেভেল ডোমেইন যুক্ত করতে হয় তা জানতে এখানে ক্লিক করুন।

তবে যেহেতু আমি ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরির কথা বলছি, তাই এখানে গুগলের সাব ডোমেইন ব্যবহার করুন। এটা সম্পূর্ণ ফ্রি। সুতরাং আপনার পছন্দের ডোমেইন নামটি এখানে প্রদান করে “Next” বাটনে ক্লিক করুন।

এখন আপনাকে আপনার ব্লগার প্রোফাইলের নাম প্রদান করতে হবে। এখানে আপনি আপনার নিজের নাম ব্যবহার করতে পারেন। ব্লগারের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে প্রত্যেকটি পোস্ট এর নীচে এই নামটি লেখা আসবে। অর্থাৎ আর্টিকেল বা পোস্ট টি কে লিখেছেন এটা তার নাম। তাই এখানে নিজের নাম ব্যবহার করতে পারেন। অতঃপর Next/নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন।

স্বাগতম, ব্লগারে আপনার একটি ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি তৈরি হয়েছে। এখন আপনি চাইলে প্রদর্শিত পেজের নিচে ডান পাশে প্লাস (+) চিহ্নে ক্লিক করে আপনার আর্টিকেল পোস্ট করতে পারেন।

এখন আমি আপনাদের সাথে ব্লগারের ইন্টারফেস সম্পর্কে আলোচনা করব।

ব্লগার ড্যাসবোর্ডের বামপাশে সাইডবারে অনেকগুলো অপশন দেখতে পাচ্ছেন সেগুলো সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ নিচে দেয়া হল।

  • Post: এখানে আপনার প্রদর্শিত বা পাবলিশ করা আর্টিকেল বা পোস্ট গুলো দেখা যাবে। এখান থেকে সেগুলো Re-edit, Delete বা Update করতে পারবেন।
  • Stats: এখানে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট টি কোন দেশ থেকে কোন দিন কতজন ভিজিট করেছে, কি ডিভাইস দিয়ে ভিজিট করেছে সেটা দেখতে পারবেন। এটা অনেকটা সংক্ষিপ্ত Google analytics এর মতন।
  • Comments: আপনার ব্লগে পাবলিশ করা আর্টিকেল এ যদি কেউ কমেন্ট করে তাহলে এখানে সেটা দেখতে পাবেন। আপনি চাইলে এখান থেকে কমেন্ট ডিলিট ও করতে পারবেন।
  • Earnings: আপনার সাইট থেকে কত ইনকাম হয়েছে এখানে সেটা দেখতে পাবেন। তবে বেশিরভাগ ব্লগারে Earnings এখানে শো করে না অথবা Not eligible দেখায়। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই আপনার ব্লগে মোটামুটি 10 থেকে 15 টা আর্টিকেল হয়ে গেলেই, এবং এর সাথে চারটি পেজ যথা, About, Contact, Privacy policy, Terms and conditions পেজগুলো যুক্ত করে দিয়ে ম্যানুয়ালি গুগল এডসেন্স এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।
  • Pages: পেজের এই অপশনে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পেজ যথা About, Contact, Privacy policy, Terms and conditions এখান থেকে তৈরি করতে পারবেন।
  • Layout: আপনার ব্লগের কোথায় কোন পোস্ট গুলো দেখাবেন এবং কোথায় কোথায় অ্যাড শো করাবেন তা লে-আউট থেকে ডিজাইন করে নিতে হয়।
  • Theme: থিম এর এই অপশনে আপনি আপনার ব্লগের কালার, ফন্ট স্টাইল , ফন্ট কালার সবকিছু পরিবর্তন করতে পারবেন।
  • Settings: ব্লগারের সেটিংস এর এই অপশনটি অনেক অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এটাও On Page SEO এর ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অর্থাৎ সার্চ ইঞ্জিনে ব্লগ বা ওয়েবসাইট ইনডেক্স করা থেকে শুরু করে মেটা ডিসক্রিপশন সবকিছু এখানে রয়েছে।

=শেষ কথা=

আমাদের মধ্যে যারা ব্লগিংএ নতুন তাদের উচিৎ ব্লগারে ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি করে সেখানে প্রাথমিক ভাবে ব্লগিং শুরু করা এবং এ সম্পর্কে প্রাথমিক ধারনা অর্জন করা।

Share this

Leave a Comment