ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার ৬ টি উপায়।

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার অনেক গুলো উপায় রয়েছে। আজকের আর্টিকেলে আমি সেই সব উপায় সমুহ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

সোস্যাল মিডিয়া বলতে আমরা বুঝে থাকি এটা বিনোদনের একটি মাধ্যম। আর এই সোস্যাল মিডিয়া থেকে যখন ইনকাম বা আয় এর কথা আসে তখন আমরা অনেকে কিছুটা অবাক হই।

কিছুদিন আগেও ফেসবুক ব্যবহার করাকে আমরা কেবল সময়ের অপচয় বলে মনে করতাম, কিন্তু ফেসবুক মনিটাইজেশন আমাদের সেই ধারনাকে ভুল প্রমানিত করেছে। আগের আর্টিকেলে আমি আলোচনা করেছি ফেসবুকের মাধ্যমে কিভাবে আয় করা যায় সেই প্রসংগে, আর আজকের বিষয় ইনস্টাগ্রাম।

পৃথিবীতে খুবই অল্প সময়ে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোর মধ্যে ফেসবুক অন্যতম আর এর পরেই ইনস্টাগ্রাম এর অবস্থান। ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করেও মাসে হাজার থেকে লক্ষ্য লক্ষ্য টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

এখন এই কথাটা শুনে আপনার মনে একটি প্রশ্ন আসতে পারে। আমি তো বিগত ৩/৪ বছর যাবৎ ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করে আসছি। কই আমার তো এক পয়সাও ইনকাম হলো না।

দেখুন, আপনি যদি গ্রাজুয়েট হতে চান তাহলে আপনাকে কমপক্ষে ৪ বছর গ্রাজুয়েশন পড়তে হবে এবং অর্থ খরচ করতে হবে। অর্থাৎ আপনাকে সময়, শ্রম এবং অর্থ তিনটিই ব্যয় করতে হবে।

ঠিক তেমনি ভাবে, আপনি যদি একটি ব্যবসা শুরু করতে যান তাহলে ব্যবসার শুরুতেই লাভের মুখ দেখবেন না। এখানেও আপনার অর্থ, শ্রম এবং সময় তিনটিই ব্যয় করতে হবে।

কিন্তু যখন অনলাইন থেকে আয় এর কথা আসে তখন আমরা এতটাই ধের্য্য হারা হয়ে পড়ি যে, রাতে শুরু করে সকালেই ইনকামের চিন্তা করি। মনে রাখতে হবে অনলাইন উপার্জন একটি ক্যারিয়ার। আর ভিডিও দেখে বা বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে যে ইনকামের ব্যবস্থা রয়েছে তা কখনোই অনলাইন ক্যারিয়ারের মধ্যে পড়ে না।

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার উপায়

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় এর জন্য আপনাকে প্রথম অবস্থায় প্রচুর সময় এবং শ্রম দুটোই দিতে হবে। এখানে আপনাকে মূলত একটি Audience তৈরি করতে হবে।

Audience হলো আপনার একাউন্টের Followers। অর্থাৎ এখানে আপনাকে একজন সোস্যাল মিডিয়া Influencer হতে হবে। অতঃপর আপনার একাউন্ট ফেমাস হবার পর আপনার একাউন্টে যে ফলোয়ার বা অডিয়েন্স তৈরি হবে সেখান হতে আপানি অর্থ আয় করতে পারবেন।

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয়

উদাহরন স্বরুপ, উপরের ছবিটি লক্ষ্য করুন। এটি Kainat Faisal নামক একজন পাকিস্তানি Fashion/beauty ব্লগার। আপনি তার একাউন্টে লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন, সে বিভিন্ন বিউটি এবং ফেসিয়াল রিলেটেড পোষ্ট করে থাকে। ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে সে তার ইউটিউব চ্যানেলের লিংক ব্যবহার করেছে। এবং একই সাথে সে বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্টের স্পনসর পোষ্ট ও করে থাকে।

আপনারাও ঠিক একই ভাবে যে কোন নিশ নিয়ে কাজ করতে পারেন। এবং একটি অডিয়েন্স তৈরি করার মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানির থেকে স্পনসর নিতে পারেন বা নিজের কোম্পানি প্রোমোট করতে পারেন।

আপনার Audience বা Followes যতো বেশি হবে আপনার ইনকামের পরিমান ততো বৃদ্ধি পাবে। যে যে উপায়ে ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা আয় করা যায় তা নিম্নে আলোচনা করা হলো –

এক নজরে উপায় সমুহ –

অর্থের বিনিময়ে অন্য কোম্পানির প্রোডাক্ট প্রোমোট করাকে Sponsor Post বলা হয়। এখানে আপনি বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্ট প্রোমট করে আয় করতে পারবেন।

যে সকল কোম্পানির পন্য বা সেবা Sponsor Post এর মাধ্যমে প্রোমোট করবেন সেই কোম্পানি গুলো আপনাকে তার বিনিময়ে অর্থ প্রদান করবে।

এ ধরনের Sponsor পেতে আপনার ইনস্টাগ্রামে কমপক্ষে ৮ থেকে ১০ হাজার ফলোয়ার থাকতে হবে। প্রতিটি Sponsor Post এর জন্য কমপক্ষে ১০ ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। তবে ফলোয়ার যতো বেশি হবে আপনার ইনকামের পরিমান ততো বৃদ্ধি পাবে।

Sponsor খোজার জন্য বেশ কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট রয়েছে। তার মধ্যে ifluenz অন্যতম। আপনার একউন্টে কমপক্ষে ৮ থেকে ১০ হাজার ফলোয়ার হয়ে গেলেই, এখানে একাউন্ট তৈরি করে বিভিন্ন কোম্পানির থেকে Sponsor নিতে পারেন।

তবে স্পনসরের জন্য আপনাকে থার্ড পার্টি কোন সাইটের স্বরনাপন্ন হতে হবে না। আপনার একাউন্টে যথেষ্ট পরিমান ফলোয়ার হয়ে গেলেই ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে অফিসিয়াল ভাবেই বিভিন্ন কোম্পানির থেকে স্পনসরের জন্য রিকুয়েস্ট পাবেন।

নিজের তোলা ছবি বিক্রি করে আয়

আপনারা হয়তবা ইতিমধ্যে জেনে থাকবেন, মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি ও অনলাইনে বিক্রি করে ভালো পরিমান অর্থ ইনকাম করা সম্ভব। আর যেহেতু ইনস্টাগ্রাম ও ছবি শেয়ারিং একটি সোস্যাল মিডিয়া সেহেতু এটি আপনার তোলা ছবি বিক্রি করতে অন্যতম ভূমিকা রাখতে পারে।

আরো পড়ুন
কিভাবে মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি অনলাইনে বিক্রি করে ভালো পরিমান ইনকাম করতে পারবেন?

ইন্টারনেটে বিভিন্ন স্টক ফটোগ্রাফি সাইট রয়েছে যেখানে আপনি আপনার তোলা ছবি বিক্রি করতে পারেন। যেমন, Shutterstock, Dreamstime, Adobe Stock, Istock ইত্যাদি। এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানতে উপরের লিংকে ক্লিক করুন।

এখন আলোচনা করা যাক ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে কিভাবে ছবি বিক্রি করা যাবে।

মনে করুন আপানি Shutterstock সাইটে কাজ করছেন। তাহলে আপনি ফটোগ্রাফির উপর একটি ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট তৈরি করতে পারেন। এবং যে সব ছবি আপনি Shutterstock এ আপলোড করেছেন সেই ছবি গুলো ও ইনস্টাগ্রামে আপলোড করতে পারেন।

অতঃপর, আপনার আপলোড করা ছবি গুলোর ডিসক্রিপশন বক্সে ছবি সম্পর্কে এবং বিক্রয় সম্পর্কে বিস্তারিত লিখে দিতে পারেন। এবং অবশ্যই আপনার Shutterstock প্রোফাইলের লিংক ইনস্টাগ্রাম এর সাথে যুক্ত করে দিবেন।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন, ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার কবে খুবই কম সময়ে প্রচুর সংখ্যাক মানুষের কাছে আপনার ছবি সম্পর্কে জানাতে পারছেন এবং কেউ যদি আপনার প্রোফাইলে থাকা ছবি গুলো পছন্দ করে তাহলে খুব সহজেই কিনে নিতে পারবে।

তবে এক্ষেত্রে ছবি বিক্রি করার জন্য যদি আপনার নিজের কোন ওয়েবসাইট থাকে তাহলে আরো বেশি পরিমান অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। কেননা স্টক ফটোগ্রাফি সাইট গুলো প্রতিটি ছবি বিক্রির জন্য আপনার উপার্জন থেকে কমিশন কেটে রাখবে।

Affiliate marketing এর মাধ্যমে আয়

আপনি খুব সহজেই Affiliate marketing এর মাধ্যমে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করতে পারেন। তবে এর জন্য আপনার একটি ওয়েবসাইট বা একটি ইউটিউব চ্যানেল থাকলে ভালো হয়।

একটি ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেল এই জন্যই থাকা প্রয়োজন কেননা, আমরা জানি ফেসবুকের মতো ইনস্টাগ্রামে পোষ্টের সাথে সরাসরি কোন প্রকার লিংক ব্যবহার করা যায় না।

অর্থাৎ আপনি যে সকল প্রডাক্ট নিয়ে Affiliate marketing এর কাজ করছেন তার ছবি গুলো এবং সংক্ষিপ্ত বর্ণনা সহ ইনস্টাগ্রামে পোষ্ট করতে পারেন। অতঃপর আপনার ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেলের লিংক ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলের সাথে যুক্ত করে দিবেন যেখানে আপনার উক্ত Affiliate এর প্রোডাক্ট গুলোর লিংক থাকবে।

এক্ষেত্রেও আপনার একউন্টে অবশ্যই যথেষ্ট পরিমানে ফলোয়ার থাকতে হবে। আপনি যখন কোন প্রডাক্ট সম্পর্কে পোষ্ট করবেন তখন আপনার একাউন্টের ফলোয়াররা আরো বিস্তারিত জানতে বা উক্ত প্রোডাক্ট ক্রয় করতে আপনার প্রোফাইল হতে আপনার ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেল ভিজিট করবে। এবং যখন কোন ক্রেতা আপনার Affiliate লিংকের মাধ্যমে উক্ত প্রোডাক্টটি ক্রয় করবে তখন আপনি কমিশন পাবেন।

ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট প্রোমোট করে আয়

আপনার একাউন্টে যদি ভালো পরিমান ফলোয়ার থাকে এবং সেই সাথে আপনার একাউন্টটি যদি যথেষ্ট জনপ্রিয় হয়ে থাকে তাহলে আপনি অন্যের ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট প্রোমোট করে আয় করতে পারবেন।

অন্যরা কেন আপনাকে তাদের আইডি প্রোমোট করার জন্য টাকা দেবে তার যথাযথ কারন খুজে পাবেন যখন আপনার একাউন্টটি নতুন থাকবে।

অনেকেরই পক্ষে ইনস্টাগ্রাম বিজ্ঞাপন দিয়ে একাউন্ট প্রোমোট করা সম্ভব নয়। কেননা এত খরচ অনেক বেশি। আর তাই তারা বিভিন্ন জনপ্রিয় একাউন্টের মাধ্যমে তাদের একাউন্ট প্রোমোট করার ব্যবস্থা করে থাকে।

যদিও ইনস্টাগ্রামে এই পদ্ধতিতে টাকা আয় করাটা তেমন কার্যকরী বা সুবিধাজনক নয়, তবুও প্রতিটি একাউন্ট প্রোমোট করার জন্য আপনি খুব সহজেই ১০ থেকে ১৫ ডলার করে আয় করতে পারবেন।
যারা তাদের একাউন্ট প্রোমোট করবে তারা নিজে থেকেই আপনার সাথে কন্টাক্ট করবে। অথবা আপনি নিজেও নতুন নতুন একাউন্ট এর মালিকদের এই ধরনের প্রোমোট সম্পর্কিত বার্তা পাঠাতে পারেন।

Product বিক্রি করে আয়

ইন্টারনেট ব্যবসা ক্ষেত্রেও ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে এসেছে। আর তার সবচেয়ে বড় প্রভাব দেখা যায় মার্কেটিং সেক্টরে।

আপনারা হয়তবা দেখে থাকবেন জনপ্রিয় প্রায় সকল ব্রান্ডেরই ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট রয়েছে। কারন বর্তমানে ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং এর অনেক বড় একটি মাধ্যম।

কোম্পানি গুলো ইনস্টাগ্রাম এর মাধ্যমে তাদের ফলোয়ার্সদের নিকট তাদের পণ্যের মার্কেটিং করে থাকে। এবং তাদের কোম্পানির বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে ভোক্তাদের অবহিত করে থাকে।

আমাদের দেশে ইনস্টাগ্রামের তেমন কোন প্রচলন দেখা না গেলেও বাইরের দেশ গুলোতে এর ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে।

ইনস্টাগ্রামে আপনি যেমন অন্যের প্রোডাক্ট প্রোমোট করতে পারেন, ঠিক তেমনি আপনার নিজের ব্যবসার পন্যের বিক্রিও বাড়িয়ে নিতে পারেন। যদিও এটি ইনস্টাগ্রাম হতে ইনকামের সরাসরি কোন মাধ্যম নয় তবুও আপানর নিজের পন্য আপনার ফলোয়ার্সদের মাঝে প্রোমোট এর মাধ্যমে পরোক্ষ ভাবে আপনার ব্যবসার বিক্রি কয়েকগুন বাড়িয়ে নিতে পারেন।

তবে ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট ব্যবহার করে আপনার নিজের প্রোডাক্ট বিক্রি করতে হলে আপনার একাউন্টে অবশ্যই ভালো পরিমান ফলোয়ার থাকতে হবে।

IGTV Video Monetization

আপনারা হয়তো বা ইনস্টাগ্রামে IGTV এর নাম শুনেছেন। ফেসবুক বা ইউটিউব এর মতো এখানে ও আপনি আপনার ভিডিও আপলোড করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

যেহেতু এই মনিটাইজেশন সিস্টেমটি এখনো চালু হয়নি এবং এটি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তাই এই বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত এখনো তেমন কোন আপডেট দেওয়া হয়নি।

তবে শেষ আপডেট অনুযায়ী যতোদূর জানা যায়, এই মনিটাইজেশন In Stream Ads হিসাবে এবং লাইভ ভিডিও গুলোতে কার্যকর হবে।

In Stream Ads সম্পর্কে আমি আগের আর্টিকেল গুলোতেই আলোচনা করেছি। যদিও এই বিষয়ে বিস্তারিত তেমন কিছু বলার নেই, তবুও সংক্ষিপ্ত ভাবে বলা যেতে পারে –

আপনারা হয়তবা দেখে থাকবেন ফেসবুকে ভিডিও প্লে করার সময় ৬ থেকে ১২ সেকেন্ডর বিজ্ঞাপন প্রচার হয়ে থাকে। সেটাই মূলত In-stream ads নামে পরিচিত। ইনস্টাগ্রামের ক্ষেত্রেও বিষয়টি একই।

এর পর রয়েছে লাইভ স্ট্রিম চ্যাট। আপনি যখন ইনস্টাগ্রামে লাইভ স্ট্রিম বা ভিডিও করবেন তখন আপনার ফলোয়াররা আপনাকে উক্ত ভিডিওতে কমেন্টের জন্য অর্থ প্রদান করবে।

এখন প্রশ্ন আসতে পারে, ভিডিওতে কমেন্ট করার জন্য কি কেউ টাকা দেয়?

উত্তরটি খুবই সহজ, জ্বী হ্যা, দেয়। আপনারা ফেসবুকের বিভিন্ন লাইভ ভিডিওতে দেখবেন সেখানে প্রতিনিয়ত প্রচুর কমেন্ট আসতে থাকে। এবং কোন কমেন্টই আপনি ঠিক ভাবে পড়ার আগেই তা দ্রুত স্ক্রল হয়ে উপরে চলে যায়।

তবে এর মাঝে কিছু কিছু কমেন্ট দেখবেন সেগুলো পিন করা থাকে। ইউটিউবে যেটা সুপার চ্যাট নামে পরিচিত। এই কমেন্ট গুলো কখনো স্ক্রল হয় না বরং তা লাইভ ভিডিও চলাকালিন পর্যন্ত পিন অবস্থায় শো করা থাকে।

কমেন্ট গুলো পিন করে রাখার জন্য কমেন্ট দাতারা ফেসবুক বা ইউটিউবকে পেমেন্ট করে থাকে। এবং পরবর্তীতে চ্যানেল বা পেজের মালিককে উক্ত অর্থ হতে তার প্রাপ্য প্রদান করা হয়ে থাকে।

তবে এই মনিটাইজেশন প্রক্রিয়া খুব তাড়াতাড়ি চালু হবার কোন সম্ভাবনা নেই। কেননা, প্রথম অবস্থায় এই মনিটাইজেশন প্রক্রিয়া পরীক্ষা মূলক ভাবে অল্প কিছু ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীর উপর চালানো হবে তাও আবার অল্প কিছু দেশে, যেমন – USA, Mexico, Brazil, Canada, Spain।

ইনস্টাগ্রামের এই পরীক্ষা মূলক মনিটাইজেশন প্রক্রিয়া ২০২০ সাল ধরে চলতে থাকবে এবং পরীক্ষা কার্যক্রম শেষে এটি শুধু মাত্র USA তেই চালু করা হবে এবং পরবর্তীতে অন্যান্য দেশে।

ইনস্টাগ্রামের এই মনিটাইজেশন এর জন্যেও আপনার একাউন্টে যথেষ্ট পরিমানে ফলোয়ার থাকতে হবে।

=শেষ কথা=

সুতরাং সময় নষ্ট না করে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার জন্য এখন থেকেই ফলোয়ার তৈরি করা শুরু করুন। অন্যান্য প্লাটফর্মের মতো ইনস্টাগ্রাম ও হতে পারে আপনার অর্থ আয়ের অন্যতম উৎস।

আমাদের আর্টিকেল গুলো ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। এবং পরবর্তী আর্টিকেল পর্যন্ত ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।

Share this

Leave a Comment