Microworkers এ কাজ করে মাসে $৫০ থেকে $১০০ ইনকাম করুন।

আমি আজ আলোচনা করবো কিভাবে আপনি Microworkers/মাইক্রোওয়ার্কারস এ রেজিস্ট্রেশন করে আয় করবেন, এর কাজের ধরন, কিভাবে পেমেন্ট পাবেন, ও কি করবেন আর কি করবেন না।

আমরা যারা অনলাইনে আয় বা ফ্রিল্যান্সিং এ নতুন তাদের ক্ষেত্রে বহুল প্রচলিত এবং জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন হল কিভাবে আমি অনলাইনে আয় করা শুরু করব?
আসলে ফ্রিল্যান্সিং অনেক বড় একটি মার্কেটপ্লেস। এখানে আপনি বিভিন্ন ধরনের কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। যেমন লেখালিখির বিষয়ে এক্সপার্ট হলে আপনি ব্লগিং শুরু করতে পারেন, ভিডিওগ্রাফি তে এক্সপার্ট হলে ইউটিউব, কোন নির্দিষ্ট বিষয়ে দক্ষ হলে যেমন গ্রাফিক্স ডিজাইন, লোগো ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন, এস ই ও, এস এম এম এছাড়া রয়েছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং।

আবার কোন বিষয়ে দক্ষ হলেই আপনি কাজ পাবেন না, এর জন্য আপনাকে বিভিন্ন ওয়েব সাইটে বিড বা আবেদন করতে হবে এবং সেই বিড বা আবেদনের প্রেক্ষিতে বায়ার আপনাকে পছন্দ করলে তিনি আপনাকে কাজ দিবেন। তবে এক্ষেত্রে যারা নতুন তাদের কাজ পেতে অনেকটা সময়ের প্রয়োজন হয় যার জন্য অনেকে ধৈর্য হারিয়ে ফ্রিল্যান্সিং ছেড়ে দেন। আবার কাজ পারলেই আপনি কি অনলাইনে ইনকাম করা শুরু করতে পারবেন না, কেননা প্রত্যেকটি পেশার বিভিন্ন ধরন রয়েছে, ভিন্ন ভিন্ন পেশায় রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন আয়ের পথ।

তাই আপনাকে প্রথমে জানতে হবে অনলাইনে আয়রে ধরণটা কি এবং সেখান থেকে পেমেন্ট পাবার সিস্টেমটাও কি। অনলাইনে এমন কিছু প্ল্যাটফর্ম রয়েছে যারা বিগিনারদের জন্য স্বল্প মূল্যে কাজ দিয়ে থাকে। এসব সাইটের মাধ্যমে আপনি যেমন কাজ শিখতে পারবেন তেমনি ছোটখাটো একটি অর্থ ও উপার্জন করতে পারবেন। তবে এসব সাইটে কাজ করার মূল উপকারিতা হচ্ছে আপনি খুব সহজেই অনলাইনে কাজ এবং আর ধরনটি বুঝে যাবেন।

শুরুতেই বলে রাখি এই আয় এর ধরনটি শুধুমাত্র তাদের জন্য যারা অনলাইনে নতুন, এবং কাজ শুরু করতে চান। আমি যখন 2014 সালে প্রথম অনলাইনে কাজ শুরু করি তখন “Microworkers”/মাইক্রোওয়ার্কারস দিয়েই আমার পথ চলা শুরু হয়। এবং সেখান থেকেই আমি অনলাইনে কাজের ধরণটা পুরোপুরি বুঝতে শিখেছি।

তাহলে চলুন শুরু করা যাক কিভাবে Microworkers/মাইক্রোওয়ার্কারস থেকে ইনকাম করবেন এবং সেখান থেকে অর্থ উত্তোলন করবেন।

Microworkers/মাইক্রোওয়ার্কারস এর নিয়মাবলী:

  • প্রতিটি কাজ আপনি দিনে 1 বারের বেশি করতে পারবেন না। তবে প্রতিদিন নতুন নতুন অনেক কাজ পাবেন।
  • প্রত্যেকটি কাজের জন্য নির্ধারিত সময় থাকবে উক্ত সময়ের মধ্যেই আপনাকে কাজ সম্পন্ন করতে হবে। যেমন আপনি যেকোনো একটি কাজ যখন স্টার্ট করবেন তখন থেকে ঠিক 2 মিনিট, পাঁচ মিনিট, ৩০ মিনিট কিংবা ১ ঘণ্টা – এমন নির্ধারিত সময় দেওয়া থাকবে অর্থাৎ উক্ত সময়ের মধ্যে আপনাকে কাজটি সম্পন্ন করতে হবে।
  • শুধু Job Task বা কাজ করলেই হবে না এখানে সাকসেস রেট এর ব্যবস্থা রয়েছে, যেমন, প্রথম পাঁচটি কাজে যদি আপনার সফলতা কমপক্ষে 75 পার্সেন্ট এর উপরে না থাকে তাহলে আপনি প্রায় এক মাসের মধ্যে কাজ করতে পারবেন না। অর্থাৎ আপনার প্রোফাইলের সাকসেস রেট মিনিমাম 75 পার্সেন্ট এর উপর রাখতে হবে।
  • Payment অর্থ উত্তোলনের জন্য নূন্যতম অর্থের পরিমান 9 ডলার। অর্থাৎ 9 ডলার হলেই Skrill, Paypal,  Payoneer এর যেকোনো একটি দিয়ে অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে গুগল এডসেন্স এর মত (প্রথম বারের জন্য) পিন ভেরিফিকেশন করতে হবে। অর্থাৎ প্রথম 9 ডলার উত্তোলন করার জন্য পিন ভেরিফিকেশন করলে আপনার ঠিকানায় 20 থেকে 40 দিনের মধ্যে ভেরিফিকেশন কোড সহ একটি চিঠি আসবে। উক্ত পিন সাবমিট করে আপনি Payment Withdrawal করতে পারবেন। আমার ঠিকানায় পিন আসতে সময় লেগেছিল 21 দিন।
  • চেকের মাধ্যমে টাকা তুললে 3%+$3 fee এবং Skrill ও Paypal এর মাধ্যমে টাকা তুললে যথাক্রমে 6.5% ও 7.5% fee কেটে নিবে।
  • সাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন।

Microworkers/মাইক্রোওয়ার্কারস এ কাজের ধরন:

microworkers-job-list

উপরের ছবিটি লক্ষ্য করুন, এখানে Microworkers এর কয়েকটি কাজের ধরন দেওয়া আছে। এখানে প্রথম যে ক্যাটাগরি সেটা হল “Job Name” অর্থাৎ জব এর নাম। দ্বিতীয় ক্যাটেগরি হলো “Payment” অর্থাৎ এই কাজটি করলে আপনি কত ডলার পাবেন এটা তার Amount. পরবর্তী ক্যাটাগরি গুলো হচ্ছে সাকসেস রেট , Time to rate, Time to finish in minute (কত সময়ের মধ্যে কাজটি করতে হবে). সবশেষে রয়েছে “Done” অর্থাৎ কত অর্ডার এর মধ্যে কতজন জবটি কমপ্লিট করতে পেরেছে।

Microworkers/মাইক্রোওয়ার্কারস এর আরো কিছু কাজের ধরন সম্পর্কে নিচে আলোচনা করা হলোঃ

Signup: এটি খুবই সহজ একটি কাজ। আমরা যেমন ফেসবুক ও google-এ অ্যাকাউন্ট তৈরি করে থাকি ঠিক তেমনভাবেই এখানে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে 10 থেকে 15 সেন্ট পর্যন্ত একটি কাজে ইনকাম করা যায়। তবে কিছু কিছু কোম্পানি সাইন আপ করার জন্য 50 থেকে 70 সেন্ট ও দিয়ে থাকে। Sign up কাজের মধ্যে রয়েছে Google account Sign up, YouTube Sign up, Facebook Sign up, Markethive Sign up, Coinsbit, KYC, Forum account create  ইত্যাদি।

Blog/Website post: আপনার যদি নিজস্ব কোনো ব্লগ বা ওয়েব সাইট থাকে তাহলে এখানে বড় একটা অ্যামাউন্ট এর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। কিছু কিছু কোম্পানি তাদের প্রোডাক্ট অথবা সেবার বিষয়ে আর্টিকেল পোস্ট এর কাজ দিয়ে থাকে। উক্ত আর্টিকেল আপনি আপনার ব্লগে পোস্ট করে একটি কাজে এক ডলার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

App Download ও Experience share: এখানে আপনি বিভিন্ন কোম্পানির মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড এবং ইন্সটল করে এবং সেখানে সাইন আপ করে তা নির্দিষ্ট কিছুদিন ব্যবহারের পর ফিডব্যাক দেয়ার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। এধরনের কাজে আপনাকে প্রথমে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে এরপর অ্যাপে একাউন্ট তৈরি করে তা এনআইডি দিয়ে একটি ভিডিওর মাধ্যমে ভেরিফিকেশন করতে হবে। এবার আপনি আপনার অ্যাপ এর নাম এবং প্রোফাইলের একটি স্ক্রিনশট নিয়ে নিচে “Submit File proofs” এ আপলোড করে “Finish” এ ক্লিক করুন। – ব্যাস আপনার কাজ শেষ।

Twitter: আপনার যদি একটি টুইটার একাউন্ট থাকে তাহলে ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মতো বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্ট বা সেবার রিভিউ লিখে এবং তা পোস্ট করে অর্থ ইনকাম করতে পারেন। এ ধরনের কাজে যিনি কাজ দেন তার রিকোয়ারমেন্ট অনুযায়ী হয়ে থাকে যেমন Leader এমন একটি কাজ দিল যেখানে একটি টুইটার একাউন্টে তার প্রোডাক্টের রিভিউ লিখতে হবে এবং উক্ত টুইটারে কমপক্ষে 500 জন বা 1000 জন ফলোয়ার থাকতে হবে। এখন যদি আপনার টুইটারে 500 জন বা 1000 জন ফলোয়ার থাকে তাহলে আপনি কাজটি করতে পারবেন।

Forum Posting: আপনি এখানে ফোরাম পোস্টিং এর মাধ্যমে ইনকাম করতে পারেন। যেমন Leader এর চাহিদা মোতাবেক ফোরাম সাইট খুজে এবং রেজিস্ট্রেশন করে সেখানে তাদের লিংক Signature হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। অর্থাৎ আপনাকে ফোরামে কমেন্ট বা পোষ্ট করে তাদের দেওয়া লিঙ্ক ব্যবহার করতে হবে।

Yahoo Answers: এটাও কিছুটা ফোরাম পোস্টিং এর মত। ইয়াহু এর একটি সাইট আছে “Yahoo Answers” (Quora এর মতন) যেখানে বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকে। এখন ধরুন Employer একটি কাজ দিল যে ইয়াহু এনসার এ আপনাকে নির্দিষ্ট কোন প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সেখানে Employer দেওয়া লিঙ্ক ব্যবহার করতে হবে। এক্ষেত্রে Employer সাধারণত Level 2 এর অ্যাকাউন্ট খুঁজে থাকেন।

YouTube: এখানে অনেক ধরনের ইউটিউব এর কাজ ও পাওয়া যায়। যেমন কোন চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করা বা Employer এর দেওয়া নির্দিষ্ট কোন ভিডিওতে কমেন্ট করতে করা, অথবা Employer এর দেওয়া কোন ভিডিও আপনার সোশ্যাল সাইটে শেয়ার করে ইনকাম করতে পারবেন।
LinkedIn: এখানে লিঙ্কডইনের কাজও পাওয়া যায়। এটা অনেকটা টুইটারের মতো। এখানে Employer এর দেওয়া আর্টিকেল বা লিংক আপনার Linked in একাউন্টে পোস্ট করতে হবে। Employer এর চাহিদা অনুযায়ী requirements থাকতে পারে যেমন আপনার linked in account ৩ মাস পুরাতন হতে হবে।

Account বিক্রি: এখানে আপনি বিভিন্ন কোম্পানির আইডি বিক্রি করেও ইনকাম করতে পারেন। যেমন ধরুন Employer কোন একটি নির্দিষ্ট সাইটের কমপক্ষে দুই বছর বা তিন বছর পুরাতন একটি আইডি ক্রয়ের জন্য Job দিলো। এখন যদি আপনার কাছে উক্ত সাইটের একটি একাউন্ট থাকে এবং তা যদি দুই বা তিন বছর পুরাতন হয়ে থাকে তাহলে আপনি অ্যাকাউন্টটি বিক্রি করার মাধ্যমে ইনকাম করতে পারেন।

নিচের ছবিটি দেখুন, এখানে একটি জব দেওয়া আছে – Employer এর TripAdvisor এর ২ বছরের পুরাতন  Account লাগবে। 

Microworkers Job-task

উপরোক্ত কাজটিতে আপনার “Tripadvisor” এর “Profile link” এবং “Email ও Password” submit করলেই কাজ হয়ে যাবে। এটা হলো “Account” বিক্রি করে আয় করার কাজ।

 কিভাবে Microworkers এ রেজিস্ট্রেসন করবেন? 

রেজিস্ট্রেশনের জন্য ভিজিট করুন www.microworkers.com এবং উপরের ডান পাশের “REGISTER” বাটনে ক্লিক করুন।

Microworkers bangla

Microworkers/মাইক্রোওয়ার্কারস সাইন আপের মূল পেজ প্রদর্শিত হবে।

  • First, Middle & Last Name: এখানে NID আইডি তথ্য অনুযায়ী আপনার নাম পুরন করুন। অনুগ্রহ করে সঠিক তথ্য প্রদান করুন।
  • Company: Company name optional সুতরাং এটা পুরন না করলে ও চলবে।
  • Birth date: এখানে আপনার জন্ম তারিখ দিন।
  • Email: যে Email দিয়ে আপনি Account তৈরি করতে চান এখানে সেই Email টি দিন।
  • Password: এখানে আপনি আপনার গোপনPassword টি প্রদান করুন।
  • Address, Zip code, City, State/Region, Country of residence: আপনি যেখানে থাকেন অর্থাৎ যে ঠিকানায় আপনি চিঠি পাবেন সেই ঠিকানা প্রদান করুন। মনে রাখবেন এই ঠিকানায় Microworkers company আপনার নিকট Payment PIN Verification এর চিঠি পাঠাবে। সুতরাং সঠিক তথ্য দিয়ে সম্পূর্ণ ফরমটি পুরন করুন।
  • Employer Subscription: এই অপশনটি বাদ দিন।
  • Worker Subscription: এখানে সব গুলো বক্স মার্ক করে Submit এ ক্লিক করুন।
  • এখন আপনার ইমেইল চেক করুন এবং Account active করুন।

এখন আপনার ইমেইল চেক করুন

Confirm-Email-Microworkers

Microworkers/মাইক্রোওয়ার্কারস থেকে এমন একটা মেইল পাবেন “Click here” এ ক্লিক করে আপনার Account টি Active করুন।

আমার একাউন্টের Job task summary

finish-job-task-microworkers

উপরের ছবিটি আমার নিজের অ্যাকাউন্টের। এখানে আমি মোট 118 টি জব টাস্ক সাবমিট করেছি এবং তার মধ্যে 101 টি”Satisfied & Paid” হয়েছে এবং ১৭ টি “Not-Satisfied” হয়েছে। ঠিক এমন ভাবে আপনি যখন কোন একটি জব টাস্ক সাবমিট করবেন সেটা কমপক্ষে একদিন থেকে শুরু করে সাত দিনের মধ্যে রিভিউ হবে, আপনার কাজ ঠিক হলে সবুজ চিহ্নের স্যাটিস্ফাইড এবং পেইড হবে, আর যদি ভুল হয় তাহলে লাল চিহ্নের নট স্যাটিস্ফাইড হবে। সর্তকতা অবলম্বন এর জন্য অনুগ্রহ করে একসাথে অনেকগুলো জব টাস্ক পুরন করবেন না কারণ বেশির ভাগ ভুল হলে আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

“Payment Proof”

payment-microworkers

উপরের ছবিটিতে আমার একাউন্টের “Payment Proof” দেখানো হলো। আমি ৯ ডলার Skrill এর মাধ্যমে Withdrawal করেছিলাম। বর্তমানে আমার একাউন্টে 5.56 ডলার রয়েছে। আমি এখানে নিয়মিত কাজ করিনা তাই ইনকামের পরিমাণ এখানে খুবই কম। আগেই বলেছি এটা কেবল তাদের জন্য যারা নতুন অনলাইনে কাজ শুরু করতে চান কিন্তু অনলাইন আয় সম্পর্কে খুব একটা ধারণা নেই। এখানে কাজ করে আপনি অল্প কিছু ইনকাম করার মাধ্যমে অনলাইন এর ধরন সম্পর্কে বিস্তর জানতে পারবেন।

কিছু সতর্কতাঃ

  • একটি কম্পিউটার থেকে দুটি অ্যাকাউন্ট খুলবেন না এতে করে আইডি ব্যান হয়ে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। দুটি অ্যাকাউন্ট খোলার কারণে আমার নিজেরই অলরেডি একটি অ্যাকাউন্ট ব্যান হয়ে গিয়েছে। আপনার একটি অ্যাকাউন্ট কম্পিউটারে থাকলে আপনি চাইলে মোবাইল দিয়ে আরও একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন কিন্তু একই কম্পিউটারে দুটি একাউণ্ট খুলবেন না।
  • পূর্ববর্তী পাঁচটি কাজের সাকসেস রেট যদি 75% এর নিচে নেমে যায় তাহলে 2-3 দিন অপেক্ষা করুন এরপর আবার জব টাস্ক পুরন এর চেষ্টা করুন।
  • আপনি যে কাজে দক্ষ না অনুগ্রহ করে সেই ক্যাটাগরির জব টাস্ক পুরন করবেন না। কারণ কাজটি ভুল হলে আপনার সাকসেস রেট কমে যাবে।
  • মাইক্রোওয়ার্কারস এর জব টাস্ক পুরন করার জন্য আপনার মেইন মেইল ব্যবহার করবেন না এর জন্য   আলাদা করে দুই তিনটা জিমেইল অ্যাকাউন্ট খুলে রাখুন। এবং এখানে কাজগুলো করার জন্য উক্ত জিমেইল গুলো ব্যবহার করুন। নতুবা আপনার মূল ইমেইলে স্পাম মেইল এ ভরে যাবে, যা খুবই বিরক্তিকর।

উপরোক্ত সতর্কতাগুলো মেনে কাজ করুন ইনশাল্লাহ ভালো ফল পাবেন। এবং যেকোন ধরনের সমস্যা কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন ইনশা’আল্লাহ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব।

— লিখেছেন – শেখ জহিরুল ইসলাম।

Share this

4 thoughts on “Microworkers এ কাজ করে মাসে $৫০ থেকে $১০০ ইনকাম করুন।”

  1. আমার বন্ধুর DSLR আছে সে অনেক ভালো ফটোগ্রাফি করে । সে সাটারস্টক বা অন্য কোন প্লাটফর্মে ফটো আপ্লোড দেয় । সে ক্ষেত্রে আমি তার পারমিশন নিয়ে আমার একাউন্ট আপ্লোড দিতে পারবো???

    Reply
    • আপনি যদি আপনার বন্ধুর আপলোড কৃত ছবি পুনরায় আপলোড দেওয়ার কথা বলে থাকেন তাহলে উত্তরটি হলো “না”। Shutterstock এ একই ছবি আপনি দুইটি Account দিয়ে Upload করতে পারবেন না।
      কেননা Stock photography তে ছবি গুলো সম্পূর্ণ আপনার নিজের হতে হবে।
      তবে আপনার বন্ধু এখনো আপলোড করেনি এমন কোন ছবি যদি সে আপনাকে আপলোডের অনুমতি দেয় তাহলে আপনি সেটা সকল Stock photography সাইট গুলোতে আপলোড করতে পারবেন।

      আপনার মূল্যবান প্রশ্নের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আরো কিছু জানার থাকলে অনুগ্রহ করে প্রশ্ন করবেন, ইনশাল্লাহ আমরা যত দ্রুত সম্ভব উত্তর এবং সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো। 🙂
      এবং আমাদের ফেসবুক পেজের সাথে Connected থাকবেন।

      Reply
  2. vaia amar account er phone number verify kortay parsi na …
    amar ohone a kono sms passi na ami ki kortay pari ?
    please advisse me.

    Reply
    • মাঝে মাঝে কিছু টেকনিক্যাল সমস্যা হতে পারে। এটা তেমন কোন সমস্যা নয়।
      আপনি মোবাইল নাম্বারটি চেঞ্জ করে দেখতে পারেন। বা অন্য কোন সময় চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

      Reply

Leave a Comment