অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করুন এবং ছবি বিক্রির ওয়েবসাইট।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর প্রথম পর্বে আমি আলোচনা করবো কিভাবে, কোথায় আপনারা ছবি বিক্রি করবেন এবং ছবি বিক্রি করে কত টাকা আয় করা যায় ও ছবি বিক্রির ওয়েবসাইট সম্পর্কে।

আজকের আর্টিকেল এর মধ্যে রয়েছেঃ

ফটোগ্রাফি অনেকের নিকট পেশা আবার অনেকের নিকট তা কেবলই শখ। কিন্তু ফটোগ্রাফি আপনার নিকট পেশা বা নেশা যেটাই হোক না কেন আপনি চাইলে অনলাইনে আপনার ছবি বিক্রি করে আয় এর মাধ্যমে “Passive Income” এর ব্যবস্থা করতে পারেন। আমাদের মাঝে বহু প্রচলিত একটি ধারণা হলো, ভালো ছবি তুলতে হলে “DSLR Camera” প্রয়োজন। কিন্তু বর্তমান সময়ে তা কেবলই ভুল ধারণা মাত্র। কারণ বর্তমান সময়ে স্মার্টফোনে থাকা অসাধারণ সব ক্যামেরা এই ধারনাকে ভুল প্রমাণিত করেছে।

ক্যামেরা কতখানি ভালো সেটা যতটা গুরুত্বপূর্ণ তার থেকে অনেক গুন বেশী গুরুত্বপূর্ণ সেই ক্যামেরার পিছনে থাকা ব্যক্তিটি, অর্থাৎ যিনি ছবিটি তুলছেন। এমনও আছে অনেকের কাছে ভালো ক্যামেরা থাকা সত্ত্বেও ছবি ভালো হয়না। আবার এমনও আছে যারা কেবলই মোবাইল ফোন দিয়ে ছবি তোলেন কিন্তু সেই ছবিটি কোন DSLR দিয়ে তোলা নাকি কোন মোবাইল দিয়ে তোলা সেটা বুঝে ওঠা দুষ্কর।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় (Payment Proof)

ছবি বিক্রি করে আয় বা Photography Earning করার জন্য আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেলে অনেক বেশি আর্টিকেল বা ভিডিও পাবেন যেখানে শুধুমাত্র ওয়েবসাইট গুলোর নাম এবং কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন সেই পর্যন্তই নির্দেশনা দেওয়া থাকে। কিন্তু কিভাবে ছবি আপলোড করবেন, কোন ধরনের ছবি আপলোড করবেন, কোন ধরনের ছবির ডিমান্ড বেশি, এবং কিভাবে পেমেন্ট নেবেন এসব বিষয়ে খুব কমই ধারণা দেওয়া থাকে। অর্থাৎ অ্যাকাউন্ট তৈরি করা থেকে শুরু করে পেমেন্ট নেওয়া পর্যন্ত এর মধ্যবর্তী সময় গুলোতে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় যার বিস্তারিত বেশিরভাগ আর্টিকেল বা ভিডিওগুলোতে পাবেন না।

অনলাইনে ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে আপনি যে খুব বেশি শিখতে পারবেন বিষয়টি আসলে তেমন নয়। আপনাকে প্রথমে মাঠে নামতে হবে, এরপর বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের মাধ্যমে স্টক ফটোগ্রাফি বিষয়ে আপনি ধীরে ধীরে পর্যাপ্ত জ্ঞান অর্জন করবেন। তখন আর কাউকে জিজ্ঞেস করতে হবে না যে কোন ধরনের ছবি তুলবেন এবং কোন ধরনের ছবি বিক্রি হয়, আপনি তখন নিজেই বুঝবেন কোন ধরনের ছবির ডিমান্ড কেমন এবং কোন ধরনের ছবি আপনার তোলা উচিত। কিভাবে ছবি বিক্রি করতে হবে এ ধরনের টিউটোরিয়াল প্রায় এক থেকে দেড় বছর যাবত দেখেছি কিন্তু তাতে কোন প্রকার লাভ হয়নি। তাই আপনি যখন ধীরে ধীরে কাজ করা শুরু করবেন তখন এই মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে ব্যাপক ধারণা অর্জিত হবে।

আমি আজ থেকে ছবি বিক্রি করে আয় করার উপর কয়েকটি সিরিজ আর্টিকেল পোস্ট করতে যাচ্ছি। আপনার নিকট যদি DSLR না থাকে তাহলে কোন সমস্যা নেই, আমি নিজেও একজন স্মার্টফোন ফটোগ্রাফার, আমার ও কোনো DSLR নেই, কিন্তু শুধুমাত্র মোবাইল দিয়ে তোলা ছবিগুলো অনলাইনে বিক্রি করে ইনকাম করেছি। ইনশাআল্লাহ এই ইনকাম ভবিষ্যতে আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশা রাখি।

Unpaid Earnings
Earning Summary

উপরের ছবিতে আমার “Shutterstock” প্রোফাইলের “Payment Proof” দেখানো হলো। “Shutterstock” এ আমার প্রোফাইল ভিজিট করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

আমি আজ প্রথম পর্বে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস ও তাদের পেমেন্ট মেথড নিয়ে কথা বলবো। তার আগেই এই মারকেটপ্লেস সম্পর্কে আমাদের কিছু বিষয় জেনে নেওয়া জরুরী।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় বাজার কেমন?

ছবি বিক্রি আয় এর ক্ষেত্রে প্রথম প্রশ্নটি আসতে পারে, এর অনলাইন বাজারটি কেমন? এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রথমে যে কথা বলতে হয় সেটা হল স্টক ফটোগ্রাফি মার্কেটটি আসলে কত বড়?

Aritzon এর তথ্য ও গবেষণা মতে, “৫% growth rate” হিসাব অনুযায়ী স্টক ফটোগ্রাফি মার্কেট 2023 সাল নাগাদ “৪ বিলিয়ন ডলার” রেভিনিউ অতিক্রম করবে। ৩০ টির ও বেশি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুলোতে প্রায় ৪০০+ মিলিয়ন এর ও বেশী ছবি মজুদ রয়েছে।

নিচের চার্টটি লক্ষ্য করুন।

Photography SiteAmount of Photos
Shutterstock220M
Alamy145M
Getty Images137M
123rf110M
Dreamstime90M
BigStock Photo82M
iStockphoto100M
Adobe Stock160M
Fotolia (Adobe)35M
PhotoDune.83M

উপরের চার্টটিতে দেখুন, কোন ওয়েবসাইটে কত পরিমাণ ছবি আপলোড করা আছে।

অনলাইনে ছবি কারা কেনেন এবং কেন কেনেন?

আমাদের দেশে অনলাইন থেকে ছবি কেনার খুব একটা প্রবণতা না থাকলেও বাইরের দেশগুলোতে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। কেননা আমাদের দেশে কপিরাইট আইন তেমন বেশি কড়াকড়ি নয় যেমনটা বাইরের দেশগুলোতে হয়ে থাকে। কিন্তু আপনার যদি কোন ওয়েবসাইট বা ব্লগ কিংবা কোন ইউটিউব চ্যানেল থেকে থাকে তাহলে এই বিষয়টি খুব ভালো বুঝবেন। ওয়েবসাইট বা ব্লগে কোন প্রকার আর্টিকেল লেখার পর সেখানে ছবি যুক্ত করতে হয়, এবং আপনি চাইলেই যেকোনো স্থান থেকে ছবি এনে সংযুক্ত করতে পারবেন না এতে কপিরাইট ক্লেইম আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

ঠিক এমন ভাবেই বিশ্বব্যাপী অনেক বড় বড় কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান, বিজ্ঞাপনী সংস্থা, গণমাধ্যম, ব্লগ বা অনলাইনে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো মূলত তাদের কাজে ব্যবহারের জন্য ছবি কিনে থাকে। এখানে সব ধরনের ছবি বিক্রি হতে পারে। তারা কিন্তু চাইলে গুগোল থেকেও সরাসরি ইমেজ সার্চ করে তাদের কাজে ব্যবহার করতে পারত, কিন্তু এতে তা কপিরাইট আইনের আওতায় পড়বে, তাই তারা বিভিন্ন স্টক ফটোগ্রাফি মার্কেটপ্লেস থেকে ছবি কিনে থাকে।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর পরিমান

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় যে প্রশ্নটি সেটা হচ্ছে, একটি ছবি বিক্রি করে কত টাকা পাওয়া যায়?

আসলে এই প্রশ্নের নির্দিষ্ট কোন উত্তর নেই, আপনার ছবি $.10 বা টাকা থেকে শুরু করে $১০০ বা ৮০০০/৯০০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হতে পারে। আমার নিজেরই একটি ছবি $18 এ বা ১৫০০ টাকায় বিক্রি করেছি। তবে মজার বিষয় হলো আমার সেই ছবিটি ও স্মার্টফোন দিয়েই তোলা। পূর্বেই বলেছি আমার কোন DSLR ক্যামেরা নেই, তাই অনলাইনে আপলোড কৃত আমার সকল ছবি ই মোবাইল দিয়ে তোলা।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় পরিমান কত? এমন প্রশ্নের উত্তরে আপনাকে মার্কেট এনালাইসিস রেভিনিউ মডেল (Market Analysis Revenue Model) সম্পর্কে ধারণা দেওয়া যেতে পারে।
নিচের চার্টটি লক্ষ্য করুন, কোন কোম্পানি কত (%) পারসেন্ট প্রফিট দিয়ে থাকে তার একটি চার্ট দেওয়া হল।

Revenue Model

Photography SiteRevenue
Shutterstock15% – 32% (Non-Exclusive Only)
Alamy50%
Getty Images25% – 45% (Non Exclusive 15%)
123rf30% – 60%
Dreamstime28% – 60% (Non Exclusive 25%)
BigStock Photo30%
iStockphoto25% – 45% (Non Exclusive 15%)
FreeDigitalPhotos70%
Fotolia (Adobe)35% – 63% (Non Exclusive 25%-46%)
PhotoDune50% – 70% (Non Exclusive 30%)

Shutterstock সাম্প্রতি ০১-০৬-২০২০ থেকে তাদের Earning structure পরিবর্তন করেছে। উপরের ছবিটিতে লক্ষ্য করুন “Shutterstock” ২০%-৩০% revenue দিতো থাকে প্রতিটি ছবির জন্য এবং এখানে শুধুমাত্র “Non-Exclusive” লাইসেন্স এ ছবি আপলোড করা যায়। কিন্তু বর্তমানে শুরুতে ১৫% revenue পাবেন কিন্তু ধীরে ধীরে যখন আপনার ডাউনলোড এর পরিমাণ বাড়বে তার সাথে revenue এর পরিমাণ ও বাড়বে (সম্পূর্ণ বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন)। অন্যদিকে “Alamy” ৫০% এর মতো revenue দিয়ে থাকে। Alamy তে আপনি Exclusive এবং No exclusive উভয় ভাবেই ছবি আপলোড করতে পারবেন। এছাড়া, Getty Images, 123rf, Dreamstime, Bigstock Photo, iStock Photo, FreeDigitalPhotos, Fotolia এবং PhotoDune এর revenue ও দেওয়া রয়েছে।

Stock Photography Market সম্পর্কে ইংরেজি Article পড়তে এখানে ক্লিক করুন।

Exclusive ও Non Exclusive license কি?

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর জন্য আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে Exclusive এবং Non Exclusive license কি?

Exclusive license photo: Exclusive license হল আপনি আপনার ছবি কেবল একটিমাত্র ওয়েবসাইটে বিক্রির জন্য আপলোড করতে পারবেন। উদাহরণস্বরূপ বলতে গেলে, মনে করুন আপনি একটি ছবি “Alamy” তে “Exclusive license” এ আপলোড করেছেন। সুতরাং আপনি উক্ত ছবিটি আর কোন মার্কেটপ্লেসে বিক্রির জন্য আপলোড করতে পারবেন না। উল্লেখিত ছবি আপলোড করার সময় Exclusive অথবা Non Exclusive select করে দিতে হবে। তবে “Shutterstock” এ সকল প্রকার ছবি “Non Exclusive license” এ আপলোড হয়, এখানে Exclusive license দেওয়া হয় না। Exclusive license এ তুলনামূলকভাবে বেশি টাকা পাওয়া যায়।

Non Exclusive license: Non Exclusive license হলো আপনি আপনার একটি ছবি বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিক্রির জন্য আপলোড করতে পারবেন। Non Exclusive license লাভের পরিমাণ তুলনামূলক কম।
তবে আমি আপনাকে সাজেস্ট করব, সব সময় Non Exclusive license এ ছবি আপলোড করবেন। কেননা এতে আপনার ছবি বিক্রি হবার সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

Exclusive এবং Non Exclusive license সম্পর্কে বিস্তারিত পরবর্তী পর্বে আলোচনা করব।

ছবি বিক্রির ওয়েবসাইট

Shutterstock

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইট হচ্ছে Shutterstock। আপনি এখানে খুব সহজেই মোবাইল দিয়ে তোলা ছবিগুলো আপলোড করতে পারবেন। আমি নিজেও একজন স্মার্টফোন ফটোগ্রাফার এবং Shutterstock এ আপলোড কৃত সকল ছবি স্মার্ট ফোন দিয়ে তোলা। সুতরাং সবার প্রথমে বলা যাক Shutterstock এর কথা।

আপনি খুব সহজেই সেখানে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ছবি আপলোড করতে পারবেন। বিভিন্ন সাইটের আর্টিকেল এবং ইউটিউব ভিডিওতে বলা হয়ে থাকে এখানে অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর কমপক্ষে 10 টি ছবি আপলোড করতে হবে যেটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আপনি একাউন্ট খুলে মাত্র দুই থেকে তিনটি ছবি ও আপলোড করতে পারবেন। আমি নিজে ও Shutterstock কাজ করি।

অন্যান্য ওয়েবসাইটগুলোতে আপনার ছবি বিক্রি হবার সম্ভাবনা যতটুকু তার থেকে অন্তত দুই গুণ বেশি সম্ভাবনা রয়েছে “Shutterstock” এ। এর বড় কারণ হলো Shutterstock এর Audience। প্রতিদিন প্রায় লক্ষ লক্ষ Online Marketer তাদের প্রয়োজনীয় ছবি খুঁজে থাকেন এই সাইটে। আর সেই সাথে Shutterstock ও পাল্লা দিয়ে তার Audience দের চাহিদা পূরণ করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

এখানে Client এর Subscription plans এর উপর ভিত্তি করে টাকা দেওয়া হয়ে থাকে। যেমন Shutterstock এর কোন নিয়মিত Subscriber যদি আপনার ছবি ক্রয় করে তাহলে টাকার পরিমাণ একটু কম পাবেন, আবার যদি এমন কেউ আপনার ছবিটি ক্রয় করেন যিনি Shutterstock এর নিয়মিত সাবস্ক্রাইবার নন সে ক্ষেত্রে টাকার পরিমাণ একটু বেশি। আবার Higher Plans এর কোন Subscriber যদি কেউ আপনার ছবি ক্রয় করেন তাহলে বেশি পরিমাণ এমাউন্টের টাকা পাবেন। Shutterstock এ আপনি সর্বনিম্ন $.15 থেকে শুরু করে $100 পর্যন্ত প্রত্যেক ডাউনলোডের জন্য আয় করতে পারবেন। এবং একজন Contributor হিসাবে আপনাকে শুরুতে বিক্রিত টাকার পরিমাণের ১৫% দেওয়া হবে। কিন্তু ধীরে ধীরে যখন আপনার ডাউনলোড এর পরিমাণ বাড়বে তার সাথে revenue এর পরিমাণ ও বাড়বে (সম্পূর্ণ বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন)।

আপনি অবশ্যই ভাবতে পারেন টাকার পরিমাণটা খুবই কম। কিন্তু এখানে মার্কেটপ্লেস টাও হিসাব করতে হবে। যেমন আমার কথাই বলা যাক, স্টক ফটোগ্রাফিতে কাজ করার শুরু থেকে আমি কেবল মাত্র Shutterstock থেকে উপার্জন করতে পেরেছি এবং পেমেন্ট পেয়েছি। কিন্তু বাকি অন্য স্টক ফটোগ্রাফি গুলোতে আমার ছবি বিক্রি সংখ্যা খুবই নগণ্য। তাই টাকার পরিমাণ কম হলেও Shutterstock এ যেমন বেশি বিক্রির সুবিধা রয়েছে তেমনি রয়েছে পেমেন্টের নিরাপত্তা।

ভালো মানের অর্থ ইনকাম করার জন্য আপনাকে নিয়মিত ছবি আপলোড করতে হবে। ছবির সাথে আপনি এখানে ভিডিও আপলোড করতে পারেন। ভিডিওতে লাভের পরিমাণ ছবির থেকে অনেক বেশি। তবে আমি আপনাকে সাজেস্ট করবো শুরুতে শুধুমাত্র ছবি নিয়ে কাজ করুন। কারণ ভিডিওগ্রাফি একটু এক্সট্রিম লেভেলের। তাই ছবিতে সফল হয়ে ভিডিওতে কনভার্ট করা ভালো।

Shutterstock সম্পর্কে আরও কিছু তথ্য:

  • Shutterstock এর সকল লাইসেন্স Non Exclusive, সুতরাং এখানে আপলোড কৃত সকল ছবি আপনি চাইলে অন্য যেকোন সাইটে পুনরায় বিক্রির জন্য আপলোড করতে পারবেন।
  • এখানে Enhanced license এ ও ছবি বিক্রি হয়, তাই সেখান থেকে বড় একটা অ্যামাউন্ট আয় করা সম্ভব।
  • আপনি Shutterstock থেকে Skrill এর মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন।

Shutterstock এ অ্যাকাউন্ট তৈরি করা থেকে শুরু করে পেমেন্ট পর্যন্ত আরো বিস্তারিত আমি পরবর্তী আর্টিকেল গুলোতে আলোচনা করব।

Shutterstock এ অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে এখানে ক্লিক করুন।

আরো পড়ুন –
Shutterstock এ কিভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন এবং প্রোফাইল ১০০% কম্পিলিট করবেন?
Shutterstock এ কিভাবে ছবি আপলোড করবেন?

Alamy

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে Alamy. Shutterstock এরপরই বলা যেতে পারে Alamy এর কথা। Alamy প্রায় বিক্রির ৫০% রেভিনিউ দিয়ে থাকে তাদের Contributor দের। তবে আপনি যদি Student হন তাহলে ৬০%- ৭০% পর্যন্ত revenue পেতে পারেন। অর্থাৎ তারা Student দের জন্য অতিরিক্ত সুবিধা প্রদান করে থাকে। Alamy মূলত প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার দের জন্য একটি পার্ফেক্ট মার্কেটপ্লেস। স্মার্ট ফোন দিয়ে তোলা ছবি Alamy তে বিক্রি করা খুবই কঠিন। স্মার্ট ফোনের ছবি তারা গ্রহন করে না বললেই চলে। তবে আপনার যদি একটি DSLR থাকে তাহলে এখানে কাজ শুরু করতে পারেন। এখানেও প্রচুর সংখ্যক Online Marketer প্রতিনিয়ত তাদের চাহিদা মোতাবেক ছবি কিনে থাকে। তবে এক্ষেত্রে আপনাকেও একটু প্রফেশনাল হতে হবে।

Alamy তে নির্দিষ্ট সময় পরপর ছবি তোলার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এবং আপনি চাইলে সেই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে অনেক বড় পরিমাণ এমাউন্ট টাকা উপার্জন করতে পারেন। Alamy প্রত্যেক মাসের শুরুর দিকেই আপনাকে আপনার পেমেন্ট পাঠিয়ে দেবে। অর্থাৎ ন্যূনতম পেমেন্ট সার্কেল পার হলেই পেপাল বা ফান্ড ট্রান্সফারের মাধ্যমে আপনাকে তারা টাকা পাঠিয়ে দেবে।

Alamy তে account তৈরি করতে এখানে ক্লিক করুন।

123rf

123rf ও খুবই জনপ্রিয় একটি মার্কেটপ্লেস। অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর ক্ষেত্রে তৃতীয় স্থানে রয়েছে এটি। এখানে আপনি স্মার্ট ফোন দিয়ে তোলা ছবি সহজেই আপলোড করে ইনকাম করতে পারবেন। 123rf মার্কেটপ্লেস টি অন্য সব মার্কেটপ্লেস থেকে একটু ভিন্ন। এখানে আপনি অংশগ্রহণ এর উপর ভিত্তি করে রয়েলিটি জেনারেট হয়ে থাকে। অর্থাৎ আপনি যত বেশি ছবি আপলোড করবেন আপনার উপার্জন ততো বেশি বৃদ্ধি পাবে। নিয়মিত ভাবে কাজ করতে পারলে আপনি এই ওয়েবসাইট থেকে ৩০% থেকে শুরু করে ৬০% পর্যন্ত রেভিনিউ ইনকাম করতে পারবেন।

123rfaccount তৈরি করতে এখানে ক্লিক করুন।

Dreamstime

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে DreamstimeDreamstime ছবি বিক্রি করে আয় এর জন্য অনেক জনপ্রিয় একটি মার্কেটপ্লেস। এখানে বাংলাদেশের অনেক Contributor আছেন যারা প্রতিনিয়ত ছবি আপলোড করে থাকেন। এই মার্কেটপ্লেসের আরো একটি সুবিধা হলো এখানে আপনি অন্যদের ফলো করতে পারবেন। অর্থাৎ কি কতগুলো ছবি আপলোড করেছে এবং কার কোন ছবি কতোবার ডাউনলোড হয়েছে তার সবকিছুই এখানে দেখা যায়। অর্থাৎ যার মাধ্যমে আপনি আপনার কাজের অনেক Improvement করতে পারবেন।

আপনি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে থাকেন থাকে Dreamstime হতে পারে আপনার জন্য পারফেক্ট একটি প্লেস।

Dreamstime Shutterstock এর মত subscribe plan দিয়ে থাকে। এখানে আপনি ছবি এবং ভিডিও ফুটেজ দুটি আপলোড করতে পারবেন। এবং চাইলে আপনার কনটেন্ট এর Price ও বাড়াতে পারবেন।
এখানে সর্বনিম্ন পেমেন্ট সার্কেল হলো 100 ডলার। অর্থাৎ পেমেন্টের জন্য আপনাকে কমপক্ষে 100 ডলার ইনকাম করতে হবে।

Adobe Stock

Adobe Stock হলো জনপ্রিয় সফটওয়্যার নির্মাতা কোম্পানি Adobe এর একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেস। আপনি যদি Photography তে ভালো হয়ে থাকেন তাহলে এখানেও আপনি ফ্রি অ্যাকাউন্ট তৈরি করার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার ছবি ও ভিডিও বিক্রি করতে পারেন।

তবে সেক্ষেত্রে আপনাকে একটু প্রিমিয়াম লেভেলের ছবি আপলোড করতে হবে। কারন বেশি ভাগ Online Marketer রা এখানে Premium image or video কেনার জন্য আসে। এখানে আপনি 33% থেকে শুরু করে 63% পর্যন্ত রেভিনিউ জেনারেট করতে পারবেন। Fotolia এবং Adobe stock এখন একই কোম্পানি। Adobe stock PayPal এর মাধ্যমে পেমেন্ট দিয়ে থাকে।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর ক্ষেত্রে Adobe Stock ও অনেক জনপ্রিয় একটি সাইট।

Adobe stock এ অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

Bigstock

Bigstockঅনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর জন্য অনেক জনপ্রিয় একটি মার্কেটপ্লেস। এটি 2004 সালে তাদের যাত্রা শুরু করে। কিন্তু 2009 সালে Shutterstock এই মার্কেটপ্লেস কি কিনে নেয়। বর্তমানে Bigstock হলো Shutterstock এর একটি অংশ। Bigstock অনলাইন মার্কেটারদের জন্য এক সপ্তাহ ফ্রী সাবস্ক্রিপশন দিয়ে থাকে। এখানে আপনি Exclusive ও Non Exclusive উভয় লাইসেন্সে ছবি আপলোড করতে পারবেন।
Bigstock এ ন্যূনতম পেমেন্ট সার্কেল হলো 100 ডলার। অর্থাৎ পেমেন্টের জন্য আপনাকে কমপক্ষে 100 ডলার ইনকাম করতে হবে।

Bigstock এ অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

Getty Image

Getty Image ও অনেক জনপ্রিয় একটি মার্কেটপ্লেস কিন্তু এখানকার সবচেয়ে বড় সমস্যা হল এখানে সবচেয়ে কম মূল্যে আপনার ছবি বিক্রি হতে পারে। যেমন আপনার একটি ছবি সর্বনিম্ন $.05 এ বিক্রি হতে পারে যা খুবই দুঃখজনক। Getty Image ও iStock বর্তমানে একই কোম্পানি।

Getty Image এ তৈরি করতে এখানে ক্লিক করুন।

প্রশ্নোত্তর পর্ব

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর ক্ষেত্রে বহুল জিজ্ঞাসিত কিছু প্রশ্ন এবং তার উত্তর:

প্রশ্ন: আমি কি একটি ছবি বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আপলোড করতে পারব?
উত্তর: হ্যাঁ অবশ্যই পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে Non Exclusive license এ ছবি আপলোড করতে হবে।

প্রশ্ন: আমি কি যে কোন মানুষের ছবি তুলে আপলোড করতে পারব?
উত্তর: হ্যাঁ আপনি যেকোন মানুষের ছবি তুলে আপলোড করতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে আপনাকে Model Release Form সংযুক্ত করতে হবে। তবে আপনি যদি Editorial category তে ছবিটি আপলোড করেন তাহলে কোন প্রকার Model Release Form সংযুক্ত করতে হবে না।

EditorialCommercial photo কি এবং তা কিভাবে আপলোড করতে হয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

প্রশ্ন: আমি কি আমার একই ভিডিও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আপলোড করতে পারব?
উত্তর: অবশ্যই পারবেন সেক্ষেত্রে ছবির মত Non Exclusive license এ আপলোড করতে হবে।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর সম্পূর্ণ পর্ব গুলো পড়তে এখানে ক্লিক করুন।

এগুলো ছাড়াও অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর জন্য অনেক জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেস রয়েছে। তবে কাজ করার সুবিধার্থে আমি এগুলো সাজিয়ে আলোচনা করেছি। মূলত যারা বিগিনার তাদের জন্য এই আর্টিকেলটি। অর্থাৎ স্মার্ট ফোন দিয়ে খুব সহজেই আপনি ছবি তুলে ইনকাম করতে পারবেন।

তাই ছবি তুলে অযথা ফেলে না রেখে তা বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে বিক্রি মাধ্যমিক প্যাসিভ ইনকাম এর একটি ব্যবস্থা করতে পারেন। এটি আমার অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় এর প্রথম আর্টিকেল।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় অন্যান্য আর্টিকেল গুলো পড়বেন। আশা করি উপকৃত হবেন।

Share this

16 thoughts on “অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করুন এবং ছবি বিক্রির ওয়েবসাইট।”

  1. “Editorial ও Commercial photo কি এবং তা কিভাবে আপলোড করতে হয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন। ” এটা যদি আরেকটু ক্লীয়ার করে দিতেন ভাই । কারণ ওই লেখায় লিংক্টি পাওয়া যায়নি।

    Reply
    • আপনার মূল্যবান মতামতের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।
      এধরনের অসুুবিধার জন্য আন্তরিক ভাবে দুঃখিত।
      লিংকটি আপলোড করা হয়েছে, অনুগ্রহ করে এখন দেখতে পারেন।

      Reply
    • আপনার প্রশ্নের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ❤️
      আমি আমার সকল ছবি মোবাইল দিয়ে তুলি এবং মোবাইল দিয়েই এডিট করি।
      শুধু তাই নয়, আপলোড করার ক্ষেত্রেও আমি মোবাইল ব্যবহার করি।
      এডিট করার জন্য আমি Google এর snapseed এবং ছবি আপলোড করার জন্য Contributor App ব্যবহার করি।
      কম্পিউটার থেকে মোবাইল এর সকল কার্যক্রম তুলনামুলক সহজ এবং দ্রুত।

      ছবি কতটা এডিট করবেন সেটা সম্পূর্ন নির্ভর করবে আপনার ছবির উপর। আমি সাধারনত বেশির ভাগ কালার কারেকশন টাই করি।
      তবে প্রোডাক্ট এর ছবি হলে ব্যাকগ্রাউন্ড চেন্জ করার প্রয়োজন পড়ে।
      আমার Shutterstock Profile এ আপলোড করা ছবি গুলো দেখলেই আমার আমার এডিটিং সম্পর্কে ধারনা পেয়ে যাবেন।
      কোন ধরনের ছবি বেশি বিক্রি হয় এবং আমি কোন কোন ধরনের ছবি বেশি বিক্রি করেছি সে সম্পর্কিত চতুর্থ পর্বটি দেখতে পারেন।
      আমি সেখানে আমার Shutterstock Profile এর লিংক শেয়ার করেছি।

      ধন্যবাদ, আরো যে কোন বিষয়ে জানতে নির্দিধায় প্রশ্ন করবেন। যত দ্রুত সম্ভব সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো।
      চাইলে আমাদের ফেইসবুক পেজের সাথে যুক্ত থাকতে পারেন।

      Reply
    • আপনার প্রশ্নের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ♥️

      Unsplash, Pixels & Pixabay এগুলো ফ্রী স্টক ফটোগ্রাফি সাইট। এখান থেকে আপনি যে কোন ছবি ভিডিও ফ্রিতে ডাউনলোড এবং ব্যবহার করতে পারবেন।

      বড় বড় ফটোগ্রাফার রা এখানে ফ্রিতে ব্যবহারের জন্য ছবি আপলোড করে থাকে এবং জনপ্রিয়তা পাবার জন্য তাদের ওয়েবসাইট এবং অন্যান্য স্টক ফটোগ্রাফি সাইটগুলোর প্রোফাইল শেয়ার করে থাকে।

      বিষয়টা অনেকটা এমন যে আপনি কিছু ছবি ফ্রিতে দিয়ে দিলেন এবং তার চেয়ে ভালো এবং উন্নত মানের ছবি ক্রয়ের জন্য আপনার ওয়েবসাইট বা স্টক ফটোগ্রাফি সাইটগুলোর প্রোফাইল ব্যবহার করলেন।

      তবে সরাসরি এখান থেকে উপার্জনের একটি মাত্র পথ রয়েছে সেটি হচ্ছে ডোনেশন সিস্টেম। যেমন, কেউ চাইলে আপনার একাউন্টে ডোনেট করতে পারবে।

      এখন আপনার মনে এমন প্রশ্ন আসতে পারে, এখান থেকেই যখন ফ্রি ছবি পাওয়া যাচ্ছে তাহলে মানুষ আপনার ছবি কিনবে কেন?
      এই প্রশ্নের উত্তর পেতে হলে সবার আগে জানা প্রয়োজন কে বা কারা স্টক ফটোগ্রাফি সাইটগুলো থেকে ছবি ক্রয় করে এবং কোন ধরনের ছবি এই সাইটগুলোতে বিক্রি হয়।

      আশাকরি প্রথম এবং চতুর্থ পর্বটি তে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।
      আরো কিছু জানার প্রয়োজন হলে নির্দ্বিধায় প্রশ্ন করুন। ইনশাল্লাহ যত দ্রুত সম্ভব সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করব।

      ভালো থাকবেন, ধন্যবাদ।

      Reply
      • অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। Shutterstock contribute app দিয়ে কি একাউন্ট খোলা যাবে? না কি কোন সমস্যা হবে?

        Reply
        • জি অবশ্যই খোলা যাবে কোন সমস্যা নেই।
          কিভাবে একাউন্ট তৈরি করবেন এবং প্রোফাইল 100% কমপ্লিট করবেন সে বিষয়ে দ্বিতীয় পর্বে আলোচনা করা হয়েছে।
          এবং সেখানে আমার রেফারেল লিঙ্ক দেওয়া হয়েছে।
          অনুগ্রহ করে রেফারেল লিংকের মাধ্যমে একাউন্ট তৈরি করবেন এতে আপনার প্রতি ডাউনলোড এর জন্য আমি $0.04 পাবো।
          এটা একটা Win Win চিন্তা ধারা যাতে সবাই লাভবান হবো – ধন্যবাদ 🙂

          Reply
  2. amar akta sobio approve hosse na , Noise, Title, Editorial, Focus, none-LC ae pblm gula beshi show korse , sob theke beshi Focus ,, ki krte pari Plz janaben,

    Reply
    • এটা স্বাভাবিক। প্রথম প্রথম এমন হবে… আমার ও অনেক সমস্যা হতো প্রথমে।
      আপনি আমাদের ফেসবুক পেজের ইনবক্সে যোগাযোগ করতে পারেন। সেখানে বিস্তারিত ভাবে বোঝাতে সহজ হবে।
      আমাদের ফেসবুক পেজ।

      Reply
  3. খুব সুন্দর ভাবে তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ।

    Reply

Leave a Comment