Shutterstock থেকে আয় – Shutterstock Account (পর্ব – ২)

Shutterstock থেকে আয় করার জন্য কিভাবে Shutterstock Contributor এ অ্যাকাউন্ট তৈরি এবং অ্যাকাউন্ট ১০০% কমপ্লিট করবেন।

Shutterstock থেকে আয় সম্পর্কে কিছু কথাঃ

Shutterstock থেকে আয় করার জন্য প্রথমে আপনাকে Shutterstock সম্পর্কে জানতে হবে। Shutterstock হল স্টক ফটোগ্রাফি ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়। আপনি খুব সহজেই এখানে ফ্রিতে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ছবি আপলোড করতে পারবেন। অনেক ইউটিউবার ও ব্লগার এর মতে Shutterstock  এ অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর কমপক্ষে 10 টি ছবি আপলোড করতে হবে। কিন্তু কথাটি সত্য নয় এখানে আপনি চাইলে মাত্র দুই থেকে তিনটি ছবি আপলোড করে আপনার যাত্রা শুরু করতে পারেন। আমি নিজেও Shutterstock এ কাজ করি।

অন্যান্য ওয়েব সাইট গুলো থেকে এখানে আপনার ছবি বিক্রি হবার সম্ভাবনা অন্তত দুই থেকে তিনগুণ বেশি, এর কারণ হলো Shutterstock এর বৃহৎ Audience। অর্থাৎ অন্যান্য ওয়েবসাইটগুলো থেকে এখানে Buyers এর সংখ্যা অনেক গুণ বেশি। প্রতিদিন প্রায় লক্ষ লক্ষ Online Marketer তাদের প্রয়োজনীয় ছবি খুঁজতে Shutterstock এ আসেন। আর চাহিদা মোতাবেক দিন দিন Shutterstock ও তার Audience দের চাহিদা পূরণ করে যাচ্ছে।

“Shutterstock” “Online Marketer”  দের Subscription Plans প্রদান করে এবং সেই অনুযায়ী Contributor দের পেমেন্ট দিয়ে থাকে। এখানে আপনি প্রতি ডাউনলোডের জন্য সর্বনিম্ন $.15 থেকে শুরু করে $100 পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন। আপনার ছবিটি যে দামে বিক্রি হবে আপনি তার 15% পাবেন। কিন্তু ধীরে ধীরে যখন আপনার ডাউনলোড এর পরিমাণ বাড়বে তার সাথে revenue এর পরিমাণ ও বাড়বে (সম্পূর্ণ বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন)।

টাকার পরিমাণটা খুবই কম মনে হতে পারে। কিন্তু এখানে মার্কেটপ্লেস টাও হিসাবের বিষয়। যেমন নিজের কথাই বলা যাক, স্টক ফটোগ্রাফিতে কাজ শুরু করার পর থেকে কেবল মাত্র Shutterstock থেকে উপার্জন করতে পেরেছি এবং পেমেন্ট ও পেয়েছি। আর বাকি ওয়েবসাইট গুলোতে বিক্রির পরিমাণ খুবই নগণ্য। তাই Shutterstock এ টাকার পরিমাণ কম হলেও এখানে অনেক সুবিধা এবং পেমেন্ট নিরাপত্তা রয়েছে।

আরো পড়ুন –

কিভাবে Shutterstock এ অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন

Shutterstock থেকে আয় এর জন্য একাউন্ট তৈরি করতে এখানে ক্লিক করুন। অতপর প্রদর্শিত পেজের উপরে ডানপাশে “Sign up” বাটনে ক্লিক করুন।

  • প্রথম ধাপ: সতর্কতার সঙ্গে উক্ত ফর্মটি পূরণ করুন।
  • Full Name: এখানে আপনার NID কার্ড বা Passport এ উল্লেখিত সম্পূর্ণ নাম টাইপ করুন।
  • Display Name: এখানে আপনি যে নামটি Buyers দের নিকট প্রদর্শিত করতে চান সেই নামটি লিখুন। এখানে আপনি বিশেষ ছদ্মনাম ও ব্যবহার করতে পারেন।
  • Email Address: এখানে আপনি আপনার ইমেইল এড্রেসটি টাইপ করুন।
  • Password: এখানে আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড দিতে হবে। পাসওয়ার্ডটিত কমপক্ষে ৮ সংখ্যার হতে হবে এবং অন্ততপক্ষে একটি Capital Character থাকতে হবে।

এরপর “I agree” বক্সটি মার্ক করে Next এ ক্লিক করুন। রেজিস্ট্রেশন এর প্রথম ধাপ যথাযথ ভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

এখন আপনার প্রদানকৃত ইমেইলটি চেক করুন। Shutterstock আপনাকে একটি কনফার্মেশন মেইল পাঠাবে।

ইমেইলটি চেক করুন এবং উক্ত ছবিতে প্রদর্শিত একটি মেইল পাবেন। এখন “Please click here to verify your email” এ ক্লিক করে আপনার একাউন্টি ভেরিফাই করুন।

Shutterstock Address

দ্বিতীয় ধাপঃ ইমেইল কনফার্মেশন করার সাথে সাথে আপনাকে Address input এর পেজে নিয়ে যাওয়া হবে। যদি অটোমেটিকভাবে এই পেজটি না আসে তাহলে আপনি পুনরায় একাউন্টে ইমেইল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন তাহলে উক্ত পেজটি প্রদর্শিত হবে।
এখানে আপনার ঠিকানা দিতে হবে। যেহেতু এটি অর্থ আয়ের এর সাথে সম্পৃক্ত তাই অনুগ্রহ করে আপনার সকল সঠিক তথ্য গুলো দিবেন। আপনার NID বা Passport এ উল্লেখিত ঠিকানা এখানে প্রদান করুন।

Country:Country তে বাংলাদেশ সিলেক্ট করুন।
Address: এখানে আপনার লোকাল ঠিকানা প্রদান করুন যদি Address লাইনে না হয় তাহলে Address Line 2 ব্যবহার করতে পারেন। অন্যথায় Address Line 2 বাদ দিতে পারেন।
City, Zip Code, State: এখানে আপনি কোন শহরে থাকেন এবং সেখানকার পোস্টাল কোড বা জিপ কোড প্রদান করুন।
Phone Number: এখানে আপনাকে আপনার ফোন নাম্বার প্রদান করতে হবে।

এখন আপনি যে ঠিকানায় থাকেন এবং যে ঠিকানায় চিঠি আসবে দুটোই যদি একই ঠিকানা হয় তাহলে নিচে বক্সটিতে মার্ক করুন এবং Next এ ক্লিক করুন। আপনি যদি চান তাহলে দুটো আলাদা ঠিকানাও প্রদান করতে পারেন।

Shutterstock first image

তৃতীয় ধাপ: এখন আপনাকে কমপক্ষে একটি ছবি আপলোড করতে হবে। আপনি যদি চান তাহলে  ছবিটি পরেও আপলোড করতে পারেন এর জন্য আপনাকে Go to dashboard এ ক্লিক করতে হবে।

আজকের দ্বিতীয় পর্বে আমি অ্যাকাউন্ট তৈরি এবং একাউন্ট কমপ্লিট করার বিষয়ে আলোচনা করব তাই অনুগ্রহ করে “Go to dashboard” এ ক্লিক করুন।

Account settings Shutterstock

উপরে যে ছবিটি দেখতে পাচ্ছেন এটা Shutterstock contributor এর dashboard। এখন আপনাকে আপনার পেমেন্ট মেথড (Payment Method) অ্যাড করতে হবে। এর জন্য উপরে ডানপাশে আপনার নামের উপর ক্লিক করে “Account Settings” এ ক্লিক করুন।

Payout-Information-Shutterstock

চতুর্থ ধাপ: এখন নিচে বাম পাশে “Payout Information” দেখতে পাবেন। Shutterstock থেকে আয় এর জন্য আপনাকে অবশ্যই পেমেন্ট মেথড যুক্ত করতে হবে। এখানে “Payment Method” এ ক্লিক করে আপনার পেমেন্ট মেথড টি সিলেক্ট করুন।
Payment Method: Shutterstock তিনটি Payment method এর মাধ্যমে অর্থ পরিশোধ করে থাকে।

  • Payoneer
  • Paypal
  • Skrill

আপনি আপনার পেমেন্ট মেথড টি সিলেক্ট করুন।

Payout Email: এখানে আপনার Payoneer, Paypal বা Skrill এর Email দিতে হবে।
Minimum Payout: এখানে আপনি যে পরিমাণ অ্যামাউন্ট দিবেন সেই পরিমাণ অ্যামাউন্ট ইনকাম হলেই Shutterstock অটোমেটিক ভাবে আপনার Payoneer, Paypal, Skrill  এ পাঠিয়ে দিবে। এখানে সর্বনিম্ন 35 ডলার সিলেক্ট করতে হবে। অর্থাৎ পেমেন্ট নেওয়ার জন্য আপনাকে কমপক্ষে 35 ডলার ইনকাম করতে হবে।

Shutterstock এর Payment এর জন্য Skrill Account তৈরি ও তা Verification এর সম্পূর্ণ বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

এখন “Save Settings” এ ক্লিক করুন। আপনার পেমেন্ট মেথড টি অ্যাড হয়ে গিয়েছে।

পঞ্চম ধাপঃ শুরুতে আপনার Profile মাত্র ৫% কমপ্লিট থাকবে। অনুগ্রহ করে আপনার প্রোফাইলটি ১০০% কমপ্লিট করুন। প্রোফাইল ১০০% কমপ্লিট থাকলে আপনার প্রোফাইলটি খুব তাড়াতাড়ি Shutterstock এ রেঙ্ক করবে এবং সর্বোপরি কোন Buyers আপনার ছবি কিনতে গেলে একটি Positive impression create হবে। অর্থাৎ Buyers আপনার ছবি কিনতে আগ্রহী থাকবে। কেননা আপনি নিজেও কখনো এমন কারো ছবি কিনতে চাইবেন না যার প্রোফাইল সম্পূর্ণভাবে কমপ্লিট করা নয় এবং সকল তথ্য প্রদান করা নেই।

প্রোফাইল কমপ্লিট করার জন্য উপরে ডানপাশে আপনার নামের উপর ক্লিক করে “Personalize My Portfolio” তে ক্লিক করুন।
এখন এখানে আপনার তথ্য প্রদান করতে হবে যেমন আপনি কি ধরনের কাজ করেন, কোন ইকুইপমেন্ট ব্যবহার করেন, এবং আপনার সোশ্যাল কন্ট্রাক্ট ইনফরমেশন গুলো। বুঝতে সমস্যা হলে নিচের ইনস্ট্রাকশন গুলো অনুসরণ করুন।

Contributor Type: এখানে Contributor type Photographer সিলেক্ট করুন। আপনি চাইলে Videographer এবং Illustrator Add করে নিতে পারেন।

Styles: আপনি কোন ধরনের ছবি তুলতে ভালবাসেন এবং আগ্রহী এখানে সেই ক্যাটাগরিগুলো সিলেক্ট করুন।

Subject: এখানে আপনি কোন বিষয় এবং কোন ধরনের ছবি বিক্রি করতে চান সেগুলো সিলেক্ট করুন। এটা অনেকটা Styles এর মতই।

Equipment: আপনি কোন ক্যামেরা বা ডিভাইস দিয়ে ছবি তোলেন সেই ডিভাইজের নামটি প্রদান করুন। যদি স্মার্ট ফোন ফটোগ্রাফার হন তাহলে আপনার ফোনের মডেল নাম্বার টি এখানে দিন। অন্যথায় যদি DSLR থাকে তাহলে সেটি টাইপ করুন। অর্থাৎ ডিভাইস ব্যবহার করুন না কেন তার মডেল নাম্বারটি টাইপ করুন।

Tagline: এখানে আপনার প্রোফাইলের ট্যাগগুলো টাইপ করুন। অর্থাৎ আপনি ফটোগ্রাফার নাকি ভিডিওগ্রাফার এবং কোন কোন বিষয়ের উপর আপনার ইন্টারেস্ট রয়েছে এবং কোন ধরনের ছবি বিক্রি করতে চান। এখানে সর্বোচ্চ 150 ক্যারেক্টারে লিখতে পারবেন। তাই গুরুত্বপূর্ণ ওয়ার্ডগুলো এখানে ব্যবহার করুন।

Location: এখানে Country সিলেক্ট করুন।
Website: এখানে আপনার কোন ওয়েবসাইট ব্লগ বা ইউটিউব চ্যানেল থাকলে তার লিংক প্রদান করুন।

Shutterstock Profile

Social Media: এখানে আপনি facebook, LinkedIn, Instagram এবং Twitter এর Username প্রদান করুন। কোন সাইটে যদি আপনার অ্যাকাউন্ট নাও থাকে তাহলে সেখানে একটি অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করে এখানে User name টি টাইপ করুন।
Biography: এখানে আপনার সম্পর্কে কিছু টাইপ করুন। সর্বোচ্চ 2 হাজার ক্যারেক্টর পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারবেন।

Shutterstock থেকে আয় এর জন্য সঠিক ভাবে Account তৈরি যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি তার প্রোফাইল কমপ্লিট করারটাও গুরুত্বপূর্ণ, সুতরাং উল্লেখিত সবগুলো ফিল্ড পূরণ করুন নতুবা আপনার প্রোফাইল 100% কমপ্লিট হবে না।

এখন আপনার একাউন্টটি সম্পূর্ণভাবে কমপ্লিট হয়েছে। আপনি চাইলে এখন থেকেই ছবি আপলোড করা শুরু করতে পারেন। আজ দ্বিতীয় পর্ব এই পর্যন্তই।

Shutterstock থেকে আয় এর জন্য সঠিক ভাবে ছবি আপলোড করাটাও জরুরি। কিভাবে ছবি আপলোড করবেন তা বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

যেকোন সমস্যা নিচের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন আমি ইনশাআল্লাহ দ্রুত সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করব। ধন্যবাদ।

Share this

12 thoughts on “Shutterstock থেকে আয় – Shutterstock Account (পর্ব – ২)”

    • You are most welcome 🙂
      পরবর্তীতে “কি ধরনের ছবি বেশি বিক্রি হয়” এবং “মোবাইল app এর মাধ্যমে কিভাবে ছবি সাবমিট করা যায়” সে বিষয়ে বিস্তারির আলোচনা করা হবে। অনুগ্রহ করে সাথে থাকবেন।

      Reply
    • পেমেন্ট তো অনেক পরের বিষয়।
      Account Disable হেয়ে যেতে পারে ভাই।
      তবে কিছু কিছু মানুষ এমন করে, কিন্তু তা নেট থেকে ডাউনলোড করে না,
      বরং অসৎ উপায়ে বা স্টক ফটোগ্রাফি সাইট থেকে ডাউনলোড করে পুনরায় বিক্রির জন্য আপলোড করে।
      কিন্তু এতে খুব বেশি লাভ নেই। কারন, আপনি একই ছবি একই সাইটে দুইবার আপলোড করতে পারবেন না।
      এমন টা করতে পারেন গ্রফিক্স ডিজাইন এর ক্ষেত্রে। যেমন কোন একটা ডিজাইন এডিট করে অর্থাৎ রি-ডিজাইন করে আবার আপলোড করতে পারেন।

      Reply
  1. আমার NID বা Passport এ উল্লেখিত ঠিকানাতে এখন আমি থাকিনা। আমার বাসা পরিবর্তন করা হয়েছে। এক্ষেত্রে আমি কি NID বা Passport এ উল্লেখিত ঠিকানা না দিয়ে নতুন ঠিকানা দিতে পারবো?

    Reply
    • জ্বী অবশ্যই পারবেন। Shutterstock এ একাউন্ট তৈরির সাথে কাজ বা পেমেন্টের কোন সম্পর্ক নেই।
      তারা Skrill, Payoneer, Paypal এই তিনটি মাধ্যমে পেমেন্ট করে থাকে।

      Reply
      • কিন্তু এই পোস্টে Shutterstock এ একাউন্ট তৈরির দ্বিতীয় ধাপে আপনি বলেছেন – যেহেতু এটি অর্থ আয়ের এর সাথে সম্পৃক্ত তাই অনুগ্রহ করে আপনার সকল সঠিক তথ্য গুলো দিবেন। আপনার NID বা Passport এ উল্লেখিত ঠিকানা এখানে প্রদান করুন।

        Reply
        • এটা সতর্কতার জন্য বলা হয়েছে, ভাই।
          কারন আমরা অনেকে একাউন্ট তৈরি করার সময় সকল তথ্য ঠিক ভাবে দিই না।
          যার দরুন পরবর্তীতে বিভিন্ন সাইটে সমস্যার সৃষ্টি হয়।
          এখন পর্যন্ত Shutterstock এর মেইন একাউন্টের সাথে পেমেন্টে একাউন্টের কোন সম্পর্ক নেই। আর তারা থার্ড পার্টি সেবার মাধ্যমে পেমেন্ট দিয়ে থাকে।
          সুতরাং এখানে একাউন্ট খোলার সময় যে অ্যাড্রেস দিতে হয় সেটা তেমন গুরুত্ব বহন করে না।
          তবে আপনি Residential Address যেটাই দিন না কেন, আপনি যে ঠিকানায় চিঠি পাবেন সেটা Mailing Address দিবেন।
          যদিও Shutterstock কোন প্রকার চিঠি মেইল করে না।
          আর সর্বোপরি এই বিষয়টি তেমন গুরুত্বপূর্ন নয়, কারন আপনি ‍যে কোন সময় চাইলে Residential Address এবং Mailing Address পরিবর্তন করতে পারবেন।

          Reply
          • ধন্যবাদ ভাই, শেষ আরেকটা বিষয় জানার ছিল – Portfolio আপডেট করার সময় একদম নিচে এই মেসেজ টা কিসের? এখানে কি করতে হবে?
            Your Public Sets
            You haven’t made any of your sets public. Please go to the Catalog Manager to create sets and make them public

          • এটা হল আপনি যে সব ছবি আপলোড দিবেন তা Category অনুসারে ভাগ করা। যাতে প্রোফাইলটা দেখতে সুন্দর দেখা যায়। আর কিছুই না।
            মনে করুন আপনার প্রোফাইলে ফুলের ছবি এবং মানুষের ছবি রয়েছে এখন ফুলের ছবি গুলো আলাদা ভাবে রাখবেন এটাই হলো সেট।

Leave a Comment