WebMoney কি? কিভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি ও ভেরিফিকেশন করবেন?

WebMoney কি?

ই-কমার্স বা অনলাইনে কেনাকাটা সম্পর্কে যাদের মোটামুটি ধারণা রয়েছে তারা নিশ্চয়ই “WebMoney” এর নাম শুনে থাকবেন। ওয়েব মানি একটি অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম। এটি রাশিয়া ভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠান। ১৯৯৯ সালে রাশিয়ায় অর্থনৈতিক সঙ্কটের কারণে সেখানে মার্কিন ডলারের ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছিল, যার দরুন সেখানে মার্কিন ডলার স্থানান্তরের ব্যবস্থা হিসেবে “WebMoney” সংস্থাটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

“WebMoney” গ্রাহকদের তহবিল গুলি একটি “পার্স” হিসেবে সংরক্ষণ করে থাকে। যার এক একটি পার্স কে এক একটি ইউনিট বলা হয়। “WebMoney” ইউনিট গুলির সম্পদ বিশ্বব্যাপী এমন সংস্থাগুলোর হাতে রয়েছে যারা অর্থ প্রদানের ক্ষেত্রে গ্যারান্টি হিসেবে কাজ করে।

কেন ওয়েব মানি ব্যবহার করবেন?

ওয়েব মানি ব্যবহারের বিশেষ কিছু সুবিধা রয়েছে, যা এই সারির অন্য কোন প্রতিষ্ঠান আপনাকে দিবেনা। নিচে “WebMoney” ব্যবহারের কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক তুলে ধরা হলো।

  • “WebMoney” এর মাধ্যমে কোন প্রকার মাস্টার কার্ড বা ভিসা কার্ড ছাড়াই বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল ইকমার্স সাইট থেকে সহজেই কেনাকাটা করতে পারবেন।
  • “WebMoney” তে কোন প্রকার বাৎসরিক খরচ নেই। 
  • “WebMoney” তে কোন প্রকার একাউন্ট ভেরিফিকেশন ছাড়াই আপনি একাউন্ট খুলেই পেমেন্ট করতে পারবেন। তবে আনলিমিটেড ট্রানজেকশন এর জন্য আপনাকে একাউন্ট ভেরিফিকেশন করতে হবে।
  • আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং করে থাকেন তাহলে অবশ্যই “EPN” এর কথা শুনে থাকবেন, “AliExpress” এর মত বড় বড় অনেক কোম্পানি EPN এর মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট সেবা দিয়ে থাকে। আর সেখান থেকে অর্থ উত্তোলনের জন্য সর্বোত্তম উপায় হচ্ছে “WebMoney”। মাত্র ২% চার্জ এর মাধ্যমে আপনি আপনার অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন।
  • বিকাশের মাধ্যমেও আপনি “WebMoney” তে ডলার ডিপোজিট করতে পারবেন। বাংলাদেশে এমন অনেক কোম্পানি আছে যারা বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট নিয়ে বিনিময়ে আপনাকে “WebMoney” ডলার প্রদান করবে।
  • এছাড়া আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং করে থাকেন তাহলে “WebMoney” এর মাধ্যমে ও পেমেন্ট নিতে পারবেন।

কিভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন?

সর্বপ্রথম আপনার ব্রাউজার এ গিয়ে WebMoney টাইপ করুন অথবা এখানে ক্লিক করুন।

প্রথম ধাপ: প্রথমেই আপনার মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। উপরে ছবিটিতে দেখতে পাচ্ছেন “Country dialling code” অটোমেটিক ভাবে “United Kingdom” সিলেক্ট করা থাকবে। এখানে “Bangladesh” সিলেক্ট করুন। শূন্য “0” বাদে বাকি নাম্বারগুলো টাইপ করুন। তার নিচে দেখতে পারছেন ভেরিফিকেশনের জন্য 5 সংখ্যার একটি নাম্বার দেওয়া আছে। বুঝতে সমস্যা হলে পাশে থাকায় রিলোড চিহ্নটিতে ক্লিক করতে পারেন। কোডটি ঠিকভাবে টাইপ করে নিচে “Continue” তে ক্লিক করুন।

২য় ধাপ: কিছুক্ষণের মধ্যেই আপনার মোবাইলে 5 সংখ্যার একটি ভেরিফিকেশন বা কনফরমেশন কোড আসবে। কোডটি টাইপ করে নিচে থাকা “Continue” বাটনে ক্লিক করুন।

৩য় ধাপ: “Create a password” এ আপনার পাসওয়ার্ডটি টাইপ করুন, “Retype password” এ ও পুনরায় পাসওয়ার্ড টি টাইপ করুন। লক্ষ্য রাখবেন পাসওয়ার্ডটি যেন কমপক্ষে 5 সংখ্যার এবং সর্বোচ্চ 29 সংখ্যার হয়। এখন “I accept all the agreements” এর বক্সটি মার্ক করে নিচের “Continue” বাটনে ক্লিক করুন।

Webmoney Purse
Webmoney Purse

চতুর্থ ধাপ: আপনার অ্যাকাউন্টটি তৈরি হয়েছে। এখন ওয়েব মানি এর মূল পেজ প্রদর্শিত হবার পর আপনাকে “Purse” create করতে হবে। আপনি যদি “USD” transection করতে চান তাহলে “WMZ – equivalent of USD” তে ক্লিক করুন।

এখন কনফার্মেশন এর জন্য “I accept the terms” বক্সটি মার্ক করে নিচের “Continue” বাটনে ক্লিক করুন।
আপনার অ্যাকাউন্টটি সফলভাবে তৈরি হয়েছে।

কিভাবে ভেরিফিকেশন করবেন?

Webmoney Account
Webmoney Account

এখন উপরের ছবিটি লক্ষ্য করুন। লাল মার্ক করা বক্সটিতে আপনার ইনফরমেশন আপডেট করার কথা বলা হচ্ছে। এখানে আপনি আনলিমিটেড ট্রানজেকশন এর জন্য পাসপোর্ট অ্যাড বা ভেরিফিকেশন করতে পারবেন।
আপনি যদি ইমেইল যুক্ত করতে চান তাহলে “Add your email address” এ ক্লিক করুন।
“Profile picture” যুক্ত করতে চাইলে “Configure an avatar” এ ক্লিক করুন।

Passport verification এর জন্য করণীয়:

“Formal or higher level passport” এ ক্লিক করার পর উপরের পেজটি প্রদর্শিত হবে।
Last name, First name ,Middle name: এখানে পাসপোর্টে উল্লেখিত নাম অনুযায়ী আপনার নামটি টাইপ করুন।
Date of birth: এখানে আপনার জন্ম তারিখ টাইপ করুন।
State: State এ আপনি যে দেশের নাগরিক সেই দেশের নাম টাইপ করুন। যেমন “Bangladesh”.
Series and number: এখানে আপনি আপনার পাসপোর্ট এর নাম্বারটি “Passport no” টাইপ করুন।
Date of issue: এখানে আপনার পাসপোর্টটি কত তারিখে ইস্যু করা হয়েছে সেই তারিখটি উল্লেখ করুন।
Who issued the passport: এখানে আপনার পাসপোর্ট টির “Issuing authority” এর নাম টাইপ করুন। যেমন DIP / DHAKA

MAILLING ADDRESS: এখানে পাসপোর্টে উল্লেখিত ঠিকানা অনুযায়ী আপনার ঠিকানা টাইপ করুন।
অনুগ্রহ করে ভেরিফিকেশনের জন্য সম্পূর্ণ তথ্য সঠিকভাবে যাচাই করে নিন। কোন প্রকার ভুল তথ্য দিবেন না।

সম্পূর্ণ তথ্য প্রদান হয়ে গেলে নিচের “Continue” বাটনে ক্লিক করুন। এখন আপনাকে আপনার পাসপোর্ট এর ছবি প্রদান করতে হবে। মোট দুটি ছবি প্রদান করতে হয় একটি ছবি সংযুক্ত পেজ এর ছবি এবং অপরটি পাসপোর্ট এর যে পেজে আপনার ঠিকানা দেওয়া থাকবে সেই পেজটি।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: আমার আগে থেকেই একটি অ্যাকাউন্ট ভেরিফাইড রয়েছে, তাই পুনরায় পাসপোর্টটি পূরণ করে সম্পূর্ণ প্রসেস দেখাতে পারলাম না। তবে এই সমস্যার কোন কারণ নেই পরবর্তী ধাপে আপনাকে আপনার পাসপোর্ট এর ছবি প্রদান করলেই হবে।
তবুও যদি কোন প্রকার সমস্যায় পড়েন অনুগ্রহ করে আমাকে জানাবেন, ইনশাআল্লাহ আমি উপযুক্ত পরামর্শ দিয়ে সমাধানের ব্যবস্থা করার চেষ্টা করব।

অনন্য অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

আমার আর্টিকেলটি ভালো লাগলে অনুগ্রহ করে শেয়ার করবেন। এবং আমাদের সাইটের অন্যান্য আর্টিকেল ভিজিট করবেন। ধন্যবাদ।

Share this

Leave a Comment